• ঢাকা
  • |
  • মঙ্গলবার ৩রা বৈশাখ ১৪৩১ সন্ধ্যা ০৭:১৯:৩৬ (16-Apr-2024)
  • - ৩৩° সে:

ভোটের শেষ দিনে বিরোধীদের ‘পুতিনের বিরুদ্ধে মধ্যাহ্ন’ কর্মসূচি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তৃতীয় ও শেষ দিনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, এ নির্বাচনের মধ্যদিয়ে আবারও ৬ বছরের জন্য ক্ষমতা নিশ্চিত করতে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এদিকে, পুতিনবিরোধীরা ভোটে এক অভিনব প্রতিবাদের পদক্ষেপ নিয়েছেন। তারা পুতিন বিরোধী ভোটারদের একযোগে মধ্যাহ্নে একই সময়ে ভোটকেন্দ্রে এসে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেয়ার আহবান জানিয়েছেন। পুতিনবিরোধীরা এ কর্মসূচির নামকরণ করেছেন ‘পুতিনের বিরুদ্ধে মধ্যাহ্ন’। রোববার (১৭ মার্চ) এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানায়, তিন দিনের এ নির্বাচনের প্রথম দুদিন অর্ধেকেরও বেশি রুশ নাগরিক ভোট দিয়ে দিয়েছেন। তবে দেশে ভোটগ্রহণের মধ্যেই ইউক্রেনের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালানোর অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া। শুক্রবার (১৫ মার্চ) নির্বাচনে বাধা ছাড়াও নাশকতা চালানোর লক্ষ্যে কিয়েভের বিরুদ্ধে রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে ড্রোন ও বিমান হামলা চালানোর অভিযোগ করেছেন পুতিন। রোববার সকাল থেকেই ইউক্রেন-রাশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় কিয়েভ এ বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে বলে দাবি করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি শনিবার ( ১৬ মার্চ) রাতে তার ভিডিও ভাষণে হামলা নিয়ে কোন কথা বলেননি, তবে তিনি তার সামরিক বাহিনী এবং গোয়েন্দাদের ইউক্রেনের নতুন দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আজ রোববার (১৭ মার্চ) নির্বাচনের তৃতীয় ও চূড়ান্ত দিনটিকে বলা হচ্ছে দেশের বিরোধীদের শক্তি পরীক্ষার দিন। এদিন বিরোধীদলের সমর্থকদের দুপরে একই সময় ভোটকেন্দ্রে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। পুতিনের সবচেয়ে বড় সমালোচক প্রয়াত আলেক্সি নাভালনির সমর্থকরা, যিনি ফেব্রুয়ারিতে আর্কটিক পেনাল কলোনিতে হঠাৎ মারা গিয়েছিলেন, রাশিয়া জুড়ে সমর্থকদের প্রতি রোববার দুপুরে একই সময়ে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এ পদক্ষেপের নাম দেয়া হয়েছে ‘পুতিনের বিরুদ্ধে দুপুর’। নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়া নাভালনির আহ্বানে ‘পুতিনের বিরুদ্ধে দুপুর’ নামে এ পদক্ষেপ নিয়েছে বিরোধীরা। এই পদক্ষেপকে তারা গ্রেপ্তারের ঝুঁকি এড়িয়ে পুতিনের বিরোধিতা করার একটি উপায় হিসাবে দেখছেন। কারণ তারা কোন অবৈধ উপায় অবলম্বন না করে কেবল লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেয়ার পরিকল্পনা করেছেন। রাশিয়ার এ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে যোগ্য ভোটার সংখ্যা ১১৪ মিলিয়ন। তবে রাশিয়ান কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটি বলেছে যে, শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৬৩ মিলিয়নেরও বেশি ভোট পড়েছে। শুক্রবার (১৫ মার্চ) স্থানীয় সময় সকাল আটটায় ভোটগ্রহণ শুরু হয় রাশিয়ায়। এ ভোটগ্রহণ রোববার রাত আটটায় শেষ হওয়ার কথা।