• ঢাকা
  • |
  • বুধবার ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ সকাল ০৮:১৪:২৭ (22-May-2024)
  • - ৩৩° সে:

লেবাননে ইসরায়েলি হামলায় ৫ হিজবুল্লাহ যোদ্ধা নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: লেবাননে ইসরায়েলের বিমান হামলায় ইরান-সমর্থিত লেবাননের শক্তিশালী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর ৫ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও পাঁচ হিজবুল্লাহ সদস্য। দক্ষিণ লেবাননের বেশ কয়েকটি গ্রাম ও শহরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় হতাহতের এই ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার (২১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ লেবাননের বেশ কয়েকটি গ্রাম ও শহরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় পাঁচ হিজবুল্লাহ সদস্য নিহত এবং আরও পাঁচজন আহত হয়েছেন বলে লেবাননের সামরিক সূত্রগুলো গণমাধ্যমকে জানিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সূত্রগুলো সোমবার বলেছে, ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর নাকোরায় চারটি হামলা চালিয়েছে এবং এতে হিজবুল্লাহর দুই সদস্য নিহত ও আরও তিনজন আহত হয়েছেন। এছাড়াও ইসরায়েল মেস আল-জাবালের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় গ্রামে দুটি অভিযান চালিয়েছে এবং দুই হিজবুল্লাহ সদস্যকে হত্যা করেছে। এই ঘটনায় অন্য একজন আহত হয়েছেন। অন্যদিকে পূর্ব লেবাননের লেবানিজ-সিরিয়ান সীমান্তের আল-কুসাইর শহরে ইসরায়েলি হামলায় এক হিজবুল্লাহ সদস্য নিহত এবং অন্য একজন আহত হয়েছেন। এদিকে হিজবুল্লাহ বলেছে, তাদের যোদ্ধারাও বেশ কয়েকটি ইসরায়েলি স্থাপনায় আক্রমণ করে জবাব দিয়েছে। প্রসঙ্গত, লেবাননে সাত মাসে আন্তঃসীমান্ত সহিংসতায় ৪০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে ইসরায়েল বলছে, লেবানন থেকে চালানো হামলায় সীমান্তে ১৪ সেনা ও ১০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। পাল্টাপাল্টি এই হামলায় উভয় পক্ষের কয়েক হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। মূলত গাজায় যুদ্ধের জেরে লেবাননের দক্ষিণ সীমান্ত জুড়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর সাথে গুলি বিনিময় করছে হিজবুল্লাহ। সশস্ত্র গোষ্ঠীটি বলেছে, তারা তার মিত্র হামাসকে সমর্থন করতে এবং লেবাননে আক্রমণ চালানো থেকে ইসরায়েলকে নিবৃত্ত করতে ইসরায়েলে রকেট নিক্ষেপ করছে। উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর হামাস-ইসরায়েলের সংঘাত শুরুর পর ৯ অক্টোবর থেকে হিজবুল্লাহ এবং ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী নিয়মিতভাবেই সীমান্তে গুলিবিনিময় করছে। মূলত হিজবুল্লাহ ও ইসরায়েলের মধ্যে ২০০৬ সালের যুদ্ধের পর এটিই ইসরায়েল-লেবানিজ সীমান্তে সবচেয়ে খারাপ সহিংসতার ঘটনা।