• ঢাকা
  • |
  • বুধবার ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ সকাল ০৮:৫৯:৫০ (22-May-2024)
  • - ৩৩° সে:

‘ভিনিসিয়ুসময়’ ম্যাচে রদ্রিগোর গোলে রিয়ালের জয়


বৃহঃস্পতিবার ২৫শে মে ২০২৩ বিকাল ০৩:৫৪



‘ভিনিসিয়ুসময়’ ম্যাচে রদ্রিগোর গোলে রিয়ালের জয়

ছবি সংগৃহীত

স্পোর্টস ডেস্ক: 

অন্য ম্যাচগুলোর মতো ছিল না এই ম্যাচ। এ ম্যাচটা ছিল ভিনিসিয়াসের, এইম্যাচটা ছিল ‘বর্ণবাদ নিপাত যাক’ শপথের। রিয়ালের হয়ে এই ম্যাচ খেলেননি ভিনিসিয়াস, কিন্তু গোটা মাঠটাই যেন রূপান্তর হয়েছিল ভিনিসিয়াসে। ভিন্ন আবহের এমন ম্যাচে জয়ের ধারায় ফিরেছে রিয়াল, লা লিগায় রায়ো ভায়েকানোকে ২-১ গোলে হারিয়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা। 

নিজেদের ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রায়ো ভায়েকানোকে আতিথ্য জানায় রিয়াল মাদ্রিদ। ভালেন্সিয়া ম্যাচে লাল কার্ড প্রত্যাহার করে নেয়া হলেও ভিনিসিয়াসকে বেঞ্চে রেখে একাদশ সাজান রিয়াল কোচ। 

ম্যাচ শুরুর আগে, ‘তুমি একা নও, আমরা তোমার পাশেই আছি ভিনিসিয়াস’ —সতীর্থ ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে এমন বার্তা দিতে এই ম্যাচটাকেই বেছে নিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে তার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করতে ‘ভিনি জুনিয়র’-এর জার্সি গায়ে মাঠে আসেন রিয়াল মাদ্রিদের ফুটবলাররা। সমর্থকরাও পোস্টারে, ব্যানারে আর চিৎকার করে বার্নাব্যূতে ফুটিয়ে তুললেন ‘বর্ণবাদ নিপাত যাক’ বার্তা। 

খেলা শুরুর আগে অবশ্য মাঠে প্রবেশ করেন ভিনি। তার সমর্থনে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে আসা দর্শকদের ভালোবাসার প্রতিক্রিয়া জানান হাত নেড়ে। এবারের লিগে প্রথমবার রায়োর কাছেই হেরেছিল রিয়াল। এবারও শুরুটা ভালোই করেছিল সফরকারীরা। ম্যাচের ১২ মিনিটে উনাই লোপেসের আক্রমণের পর ২৬তম মিনিটে সান্তিয়া কোমাসেরার প্রচেষ্টা। দুটোই অবশ্য ফিরিয়ে দিয়েছেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। 

সম্ভাব্য সেরা একাদশ নিয়েও প্রথম ৩০ মিনিট যেন নিস্প্রভ ছিল লস ব্লাঙ্কোসরা। যদিও ৩১তম মিনিটে প্রথম আক্রমণ থেকেই গোল তোলে নেয় কার্লো আনচেলত্তির শিষ্যরা। ফেদে ভালভারদের সঙ্গে বল দেয়া-নেয়া করে গোলরক্ষককে কাটিয়ে কোনাকুনি শট নেন বেনজেমা। জালের দিকে ছুটতে থাকা বল এক ডিফেন্ডার স্লাইড করলেও লাভ হয়নি। বল ঠিকই খুঁজে নেয় ঠিকানা। এগিয়ে যায় রিয়াল। প্রথমার্ধে আর কোনো গোল না হওয়ায় রিয়াল মাদ্রিদ ১-০ গোলে এগিয়ে থাকা অবস্থায় বিরতিতে যায় দুই দল। 

দ্বিতীয়ার্ধে বলার মতো সুযোগ তৈরী করতে পারছিল না স্বাগতিকরা। উল্টা ৮৪তম মিনিটে গোল হজম করে বসে আনচেলত্তির শিষ্যরা। সমতায় ফেরে ভায়েকানো। কোর্তোয়াকে পরাস্ত করেন রাউল দি তমাস। 

১-১ সমতা নিয়েই যখন ম্যাচ শেষের শঙ্কা, তখন ত্রাতা হয়ে দেখা দেন ব্রাজিলিয়ান তরুণ তুর্কি রদ্রিগো। ম্যাচ শেষের মিনিট খানেক আগে দানি সেবাইয়োসের পাস ধরে নিখুঁত শটে লক্ষ্যভেদ করেন রদ্রিগো। ফলে ২-১ গোলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রিয়াল মাদ্রিদ। 

লা লিগার শিরোপা আগেই বার্সালোনা নিশ্চিত করে ফেলায় দ্বিতীয় স্থান অর্জনের জন্যই মূলত লড়াই করছে রিয়াল মাদ্রিদ। যেখানে তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আটলেটিকো মাদ্রিদ। 

এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে রিয়াল। ৩৬ ম্যাচে ৭৪ পয়েন্ট তাদের। সমান ম্যাচে ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আটলেটিকো মাদ্রিদ।

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ