মামুন কৌশিক, বারহাট্টা উপজেলা প্রতানিধি: নেত্রকোণার বারহাট্টা উপজেলার ওসি মিজানুর রহমানের তৎপরতায় এক মানসিক ভারসাম্য হীন ব্যাক্তি ফিরে ফেল তার পরিবারকে। বারহাট্টা থানা ও স্থানীয় জনগণ সূত্রে জানা যায় যে, উপজেলার আমঘাইল এলাকায় রহস্যজনক ভাবে এক ব্যাক্তিকে ঘুরাঘুরি করতে দেখে চুর মনে করে সেই ব্যাক্তিকে আটক করে বারহাট্টা থানায় তথ্য দেন এলাকাবাসী।

তাৎক্ষণিক বারহাট্টা থানার ওসি মিজানুর রহমান ঘটনাস্থলে টহল পুলিশ প্রেরণ করেন। এই বিষয়ে বারহাট্টা থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন যে, গত ১৪/৭/২০২০ তারিখ রাত ০৯ঃ০০ ঘটিকার দিকে খবর আসে বারহাট্টা থানাধীন আমঘাইল এলাকায় সন্দেহজনক ভাবে ঘোরা ফেরা করতে দেখে চোর সন্দেহ স্থানীয় জনতা একজনকে আটকে রেখেছে।

আমি তড়িৎ টহল পার্টিকে পাঠাই। আটককৃত ব্যক্তিকে থানায় নিয়ে আসার পর সে স্পষ্ট কথা বলতে পারছিল না। কারণ প্রথমত সে মানসিক ভারসাম্যহীন, দ্বিতীয়ত শত শত লোক কর্তৃক ধৃত হয়েছে, তৃতীয়ত সে ছিল খুবই ক্ষুধার্ত। প্রথমে তাকে অভয় দিয়ে কিছু খাবার দিতে বলি। মেস ম্যানেজার খাবার দিলে সে খুব আয়েস করে খায়। তারপর জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় তার নাম মোঃ আবুল কাশেম।

বাড়ি মদন থানা এলাকার মনিকা গ্রামে। বাবা মা বেচে নাই। এর বেশি সে বলতে পারে না। মদন থানায় কর্মরত এস আই নুরুল আমিনের সহায়তায় জানা যায় সে প্রায় ১২ বছর যাবত মানসিক ভারসাম্যহীন। বিগত প্রায় ০১ মাস যাবত বাড়ি থেকে নিখোঁজ। পরিবারের লোকজন বহু খোজাখুজি করেছে। খবর দেওয়া হয় তার বাড়িতে। আজ ই -১৫/৭/২০২০ তারিখ আবুল কাশেমের বোন,বোন জামাই ও স্থানীয় ইউপি সদস্য এসে তাকে নিয়ে যায়।