৫৫ বছর পর উদ্বোধন চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রেলযোগাযোগ

আতাউর রহমান, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: দীর্ঘ ৫৫ বছর অপেক্ষার পর বাংলাদেশের নীলফামারী এবং ভারতের জলপাইগুড়ি ও কোচবিহারের বাসিন্দাদের জন্য আজ আনন্দের দিন। আর আনন্দের কারণ হলো ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রেলপথ চালুর ঘোষণা দিলেন।

বৃহস্পতিবার ১২টায় দীর্ঘ ৫৫ বছর পর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হল চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রেলযোগাযোগ।

এদিকে দিনটি স্মরণীয় করে রাখতে হাজার হাজার জনতা রেললাইন উদ্বোধনকে স্বাগত জানাতে চিলাহাটি স্টেশনে ভিড় করে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ৩২টি এমটি পণ্যবাহী রেকসহ ইঞ্জিনকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। চিলাহাটি জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত সাত কিলোমিটার নতুন রেলপথ স্থাপন করাসহ ভিআইপি গেস্ট হাউজ নির্মাণ করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এক ভার্চুয়াল বৈঠকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, সুসম্পর্কের বিষয়ে বাংলাদেশকে সবসময় প্রাধান্য দেয়া হয়। আর প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক একটি যুগান্তকারী মুহূর্ত অতিক্রম করলো আজকে।

১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধের পর বাংলাদেশের উত্তর সীমান্তে নীলফামারী চিলাহাটি এবং ভারতের হলদিবাড়ী হয়ে দার্জিলিং পর্যন্ত রেলপথ বন্ধ হয়ে যায়।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এ অঞ্চলের মানুষজন বলছেন, এই রেলপথ চালুর মাধ্যমে তাদের ব্যবসা-বাণিজ্যে নতুন সম্ভাবনার সৃষ্টি হবে। আসবে অর্থনৈতিক সচ্ছলতাও।

উল্লেখ্য, ৮০ কোটি ১৬ লাখ ৯৪ হাজার টাকা ব্যয় বাংলাদেশ অংশে ৬ দশমিক ৭২৪ কিলোমিটার রেলপথ এবং ২ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার লুপ লাইন স্থাপনের কাজ শুরু হয়। ২০১৯ সালের ২১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ অংশের নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন করেছিলেন রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।