৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ

সুশীল চন্দ্র দাস, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে হবিগঞ্জ পৌরসভার ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা এবং মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরের শংকর সিটির রমা কমিউনিটি সেন্টারে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির এমপি। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটোর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এবং সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলামের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ আলমগীর চৌধুরী।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সুজিত বণিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ মিজানুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মামুন, ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি অমীয় রায়, ২নং ওয়ার্ডের সহ সভাপতি মনসুর আলী কুটি, ৩নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম প্রমুখ।

আলোচনা সভার শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন এবং পরে মিলাদ, দোয়া ও উপস্থিত নেতাকর্মীদের মাঝে তাবারুক বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এমপি আবু জাহির বলেন, অনেক জেল-জুলুম অত্যাচার সহ্য করে বাংলাদেশ সৃষ্টি করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

কিন্তু পাকিস্তানের প্রোতত্মারা তাঁকে সপরিবারে হত্যা করে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে জাতিকে। চেষ্টা করেছে জাতির পিতা হত্যার বিচার বানচালের। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া বাংলাদেশের প্রকৃত ইতিহাস বদলে দিতে চেয়েছিলেন। স্বাধীনতা বিরোধীদের গাড়িতে তুলে দিয়েছিলেন পতাকা।

এছাড়া জিয়াউর রহমান ও এরশাদের মাধ্যমে দেশের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। এদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।