২২ কারারক্ষী করোনায় আক্রান্ত, কোয়ারেন্টিনে ৯৩

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) অন্যান্য শ্রেণি-পেশার মানুষের মতো আক্রান্ত হচ্ছেন কারারক্ষীরাও। এখন পর্যন্ত সারাদেশে অন্তত ২২ জন কারারক্ষী আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া দুজন কয়েদি ও একজন কারা চিকিৎসকও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এরা সবাই এখনো সুস্থ রয়েছেন। এ ছাড়া কোয়ারেন্টিনে আছেন আরো ৯৩ জন কারারক্ষী।

আজ শুক্রবার কারা অধিদপ্তরের এআইজি মুহাম্মদ মঞ্জুর হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন।

মুহাম্মদ মঞ্জুর হোসেন বলেন, ‘আজ শুক্রবার পর্যন্ত সারাদেশের কারাগারগুলোয় মোট ২২ জন কারারক্ষী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত হয়েছেন দুজন কয়েদি। একজন কেরানীগঞ্জ কারাগারের আর অন্যজন পঞ্চগড় কারাগারের বন্দি। এ ছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া কারাগারের একজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন অফিস থেকে কারাগারে সংযুক্ত আছেন অতিরিক্ত দায়িত্বে। আক্রান্ত রোগীরা এখনো পর্যন্ত ভালো অবস্থায় আছেন। তাদের সবাইকে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

কারা অধিদপ্তরের এআইজি বলেন, ‘আক্রান্ত এসব কারারক্ষীরা আসামির সঙ্গে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এদের ভেতরে ২১ জন কেরানীগঞ্জ কারাগারের স্টাফ। এবং একজন রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের। এই মোট ২২ জনের ভেতরে দুজন জিনজিরা ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল, দশজন মিরপুর ম্যাটার্নিটি এবং অপর ৯ জন মুগদা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ছাড়া একজন বর্তমানে রংপুর মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।’

মুহাম্মদ মঞ্জুর হোসেন আরো বলেন, ‘করোনা সন্দেহে এখনো পর্যন্ত মোট ৯৩ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। এদের ভেতরে ঢাকা বিভাগে ৩৬ জন কারারক্ষী এবং ১৪ জন বন্দি আছেন। সিলেট বিভাগে একজন কারারক্ষী ও একজন হিসাবরক্ষক, রংপুর বিভাগে আটজন কারারক্ষী, বরিশাল বিভাগে একজন কারারক্ষী, চট্টগাম বিভাগে ১০ জন কারারক্ষী এবং ২২ জন বন্দি কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন।’