১৯৫টি দেশে একযোগে মুজিব শত জন্মবার্ষিকী উদযাপন

ইব্রাহিম খান সাকিল,ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, ইতিহাস তার নিজ স্থানে ফিরে এসেছে। আওয়ামীলীগ সরকারের সময়েই মুজিব শত জন্মবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালিত হতে যাচ্ছে। ইউনের সিদ্ধান্তে ১৯৫টি দেশে একযোগে মুজিব শত জন্মবার্ষিকী উদযাপন করা হবে। এটিই বাঙালি জাতির জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। আজ সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টায় ঝালকাঠির নলছিটি সরকারি মার্চেন্টস্ মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় ভাবে উদ্ভাবিত লাগসই প্রযুক্তির প্রয়োগ ও সম্প্রসারণ শীর্ষক সেমিনার ও প্রদর্শনী’র অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

এসময় সাবেক এ মন্ত্রী আরো বলেন, এ দেশ হাওয়ায় ভেসে আসেনি । এজন্য জাতির পিতাকে ২৩ বছর কারাবরণ করতে হয়েছে। তাই মুজিব বর্ষে গবেষণামুলক নতুন নতুন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে উন্নত দেশ ও আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে জাতির জনকের স্বপ্ন বাস্তবায়নে জন্য সরকার নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। দেশীয় গবেষণার ফলে ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে ধান ও চালের ব্যাপক ফলন সম্ভব হয়েছে। এতে করে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে।

নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদারের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিসিএসআইআর এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. সেলিম খান, নলছিটি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সিদ্দিকুর রহমান। এসময় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মো: শাহআলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, ঝালকাঠি পৌরসভার মেয়র মো. লিয়াকত আলী তালুকদার প্রমুখ। পরে আমির হোসেন আমু প্রদর্শনীতে অংশনেয়া ১৬টি স্টল ঘুরে দেখেন। এর আগে শহরের পুরান বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন এবং ওই বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করে।