১১৪ বছর বয়সী নানাকে গলা টিপে হত্যা করলো নাতি সীতাকুন্ডে

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ সীতাকুণ্ডে আলীম উল্লাহ নামের ১১৪ বছর বয়সী নানাকে গলা টিপে হত্যা করেছে নাতি সালাউদ্দিন। সোমবার (৮ জুন) সকাল সাড়ে ৮ টার সময় উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড বদিউর রহমান সেরাং এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের লাশ পুলিশ উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।
নাতি সালাউদ্দিন (২৭) নিহত আলীম উল্লাহর মেয়ের ঘরের ছেলে। সালাউদ্দিন উপজেলার ১নং দক্ষিণ সৈয়দপুর মুসলীমুর রহমানের পুত্র। সালাউদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত আলিমউল্লাহর পুত্র সাবেক ইউপি সদস্য খোরশেদ আলম বলেন, সালাউদ্দিন আমার বড় বোনের ছেলে। সে কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন। সকালে আমার ভাগিনা আমাদের বাড়িতে আসে নানাকে দেখতে। তখন একটা রুমে শুয়েছিল আমার বাবা, আমি রুমে গিয়ে দেখি সালাউদ্দিন একটি বেল্ট দিয়ে আমার বাবার গলায় ফাঁস দেয়।
এটি দেখে আমি চিৎকার করে বাবার পাশে গিয়ে দেখি বাবার জিব্বাহ বের হয়ে গেছে। আমি বিষয়টি থানাকে অবহিত করলে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়। খোরশেদ আলম বলেন, সালাউদ্দিন যেহেতু মানসিক ভারসাম্যহীন তাই আমরা পারিবারিকভাবে মামলা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মুরাদপুর ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদ হোসেন নিজামী বাবু বলেন, আলীম উল্লাহ আমার ইউনিয়ের একজন বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি।
তারই নাতী গলা টিপে নানাকে হত্যা করেছে। শুনেছি সালাউদ্দিন নামের ছেলেটি মানসিক ভারসাম্যহীন। এ ব্যাপারে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি ফিরোজ হোসেন মোল্লা বলেন, মুরাদপুরের একটি বাড়ি থেকে আমরা একজন বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছি। তাকে গলা চেপে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। যে হত্যা করেছে সে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল। লাশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতলের মর্গে প্রেরন করেছি। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।