১শ শয্যা নিয়ে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বিএসবিএ হাসপাতাল

 মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ নগরীর ভাটিয়ারীস্থ বাংলাদেশ শীপ ব্রেকিং এসোসিয়েশন(বিএসবিএ) হাসপাতালকে ১শ শয্যা করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে রূপান্তরের উদ্যোগ নিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন। এই লক্ষ্যে আজ সকালে হাসপাতালটি পরিদর্শন করেন সিটি মেয়র।

এসময় চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা.মোস্তফা খালেদ আহমেদ, সিভিল সার্জন ডা.ফজলে রাব্বী, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, বিএমএ চট্টগ্রাম এর সভাপতি ডা. মুজিবুল হক খান, হাসপাতালের পরিচালক মঈন শাহ এমরান, রাশেদুল আমীন, সিতাকুন্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ হোসেন মোল্লা প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এই হাসপাতালে আইসিইউ সহ করোনা রোগীদের সেবা দিতে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। যেহেতু হাসপাতালটি চালু অবস্থায় রয়েছে আগামী দুই-এক দিনের মধ্যেই এই হাসপাতালে সেবা দেয়া শুরু করা যাবে। পরিদর্শনকালে মেয়র হাসপাতালের পরিবেশ, চিকিৎসক ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, দিন দিন করোনা ভাইরাস তার থাবা বিস্তার করছে।

সেবা পেতে নগরীর এক প্রান্তের রোগীদের অপর প্রান্তে ছুটাছুটি করতে হচ্ছে। তাই আমরা প্রত্যেকের হাতের নাগালে টেস্টিং বুথ ও হাসপাতাল তৈরীর উদ্যোগ নিয়েছি। নগরপিতা হিসেবে নগরবাসীর সেবা নিশ্চিত করতে আমার উপর আর্পীত দায়িত্ব মাথায় রেখে আমি ঘরে বসে নেই।

বিগত দিন সহ চলমান সময়েও আমি আপনাদের পাশে ছিলাম ও আছি। হয়তো ব্যক্তি হিসেবে আমাকে কেউ অপছন্দ করতেই পারেন, তবে জনগনের সার্থে সেবা দিতে গৃহিত পদক্ষেপগুলোতে সকলের সহযোগিতা পাবো আশা করছি। তিনি বলেন, মহামারির প্রভাবে প্রয়োজনানুযায়ী সেবাকেন্দ্র বৃদ্ধির প্রয়োজন রয়েছে।

আমরা যদি যথা সময়ে পদক্ষেপ গ্রহণ না করি তবে নগরবাসী সেবা হতে বঞ্চিত হবেন। এসময় মেয়র স্বাস্থ্য পরিচালক,সিভিল সার্জন ও বিএসবিএ হাসপাতালের পরিচালককে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, একক প্রচেষ্টায় এতবড় ভাইরাস মোকাবেলা করা অসম্ভব। আপনারা আমার সাথে সময় করেছেন বলেই আমরা চট্টগ্রাম নগরে নতুন নতুন সেবাকেন্দ্র ও করোনা টেস্টিং বুথ চালু করতে পারছি।

তবে এই কর্মযজ্ঞে চিকিৎসক ও নার্সরাই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে। তাঁদের ঐক্যান্তিক চেষ্টায় ও মানবিক সেবার কারনে করোনা আক্রান্তরা সঠিক সেবা পাচ্ছেন এমনকি তুলনামূলক রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরছেন। এর পূর্বে মেয়র গতকালের সিদ্ধান্তনুযায়ী নগরীতে ১২টি করোনা টেস্টিং বুথ স্থাপনের স্থান আন্দরকিল্লা পুরাতন নগরভবন, ফিরিঙ্গী বাজার,বিবির হাট, চান্দগাও ও উত্তরকাট্টলীর নির্বাচিত স্থানগুলো পরিদর্শন করেন তড়িৎ গতিতে করোনা পরীক্ষা বুথ কার্যক্রমের নির্দেশনা দেন।

এসময় মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, ব্রাক এর আঞ্চলিক পরিচালক মোহাম্মদ হানিফ, ডা. মোহাম্মদ আলী, তপন চক্রবর্তী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। পরে মেয়র জাকির হোসেন রোডস্থ হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালও পরিদর্শন করেন এবং এই হাসপাতালে আগামীকাল থেকে সেবা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।