হালুয়াঘাটে পর্যটন সম্ভবনা বিষয়ক জেলা প্রশাসকের মতবনিমিয় সভা

এম,এ মালেক, হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার গাজিরভিটা ইউনিয়নে গাবরাখালী পাহাড়ে পর্যটন সম্ভবনা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার বিকেলে গাবরাখালী পাহাড়ের পাদদেশে অনুষ্ঠিত এই মতবিনিময় সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহমুদুল হক সায়েম,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাখাওয়াত হোসেন ফকির, আওয়ালীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কবিরুল ইসলাম বেগ, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুর রশিদ, পৌর মেয়র খাইরুল আলম ভূঞা,সহকারী কমিশনার ভূমি তানভীর আহাম্মেদ, সহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ।

মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বলেন, হালুয়াঘাটে পর্যটনের অপার সম্ভবনা রয়েছে। ইতিমধ্যেই গাবরাখালী পাহাড়ে পর্যটন কেন্দ্র করার লক্ষ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু প্রকল্প গ্রহন করা হয়েছে। এই প্রকল্পের কাজগুলো শেষ হলে সারা দেশে হালুয়াঘাটকে নতুন করে চেনার সুযোগ তৈরি হবে। স্থানীয়রাও প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ।

উল্লেখ্য, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলা পৌর শহর থেকে প্রায় ১২ কিলোমিটার দূরে মেঘালয় রাজ্যের সীমান্তঘেঁষা গারো পাহাড়। সেই পাহাড়ে ঘেরা গাজিরভিটা ইউনিয়নের গাবরাখালী গ্রামে সরকারি উদ্যোগে গড়ে তোলা হচ্ছে পিকনিক স্পট।

প্রাথমিক পর্যায়ে দুইটি পাহাড় নিয়ে পিকনিক স্পটের কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ১২৫ একর জায়গার উপর পিকনিক স্পটের কাজ করা হবে। এ কাজের জন্য হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ থেকে ৩৮ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করতে এখানে নির্মাণ করা হবে, সুদৃশ্য প্রধান ফটক, ডিসপ্লে মডেল, তথ্য কেন্দ্র, গাড়ি পার্কিং জোন, ক্যান্টিন, ওয়াচ টাওয়ার, মিনি চিড়িয়াখানা, মনোরম লেক ও বোটিং, ব্রিজ, স্ট্রেম্পিং রোড বা সুউচ্চ পাহাড়ে ওঠার জন্য ধাপ রাস্তা (সিঁড়ি), মিনি শিশু পার্ক, রেস্ট হাউজ ইত্যাদি।