হাটহাজারীতে র‌্যাব ক্যাম্প (সিপিসি-২) উদ্বোধন,হালদা রক্ষায়ও কাজ করবে র‌্যাব মহাপরিচালক

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ হাটহাজারীতে রোববার ক্যাম্প উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন র‌্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও কাজের পরিধি বাড়াতে র‌্যাপিড অকশান ব্যটালিয়ন র‌্যাব-৭ (চট্টগ্রাম) বহরে যুক্ত হয়েছে নতুন ক্যাম্প (সিপিসি-২)। হাটহাজারীতে রোববার দিকে এ ক্যাম্প আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছেন র‌্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন। উদ্বোধনের পর হালদা নদী পরিদর্শনে গিয়ে র‌্যাব প্রধান বলেছেন, হালদার জীববৈচিত্র রক্ষায় র‌্যাব সদস্যরা কাজ করবেন।

এটি বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সম্পদ। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, অপরাধ, সন্ত্রাস দমনের পাশাপাশি হালদা রক্ষায় স্থানীয় প্রশাসনকে যা সহযোগিতা দরকার তা করতে প্রস্তুত র‌্যাব। এর আগে হাটহাজারীর উপজেলা সদর আব্বাসের পুল এলাকায় র‌্যাব ক্যাম্প (সিপিসি-২) উদ্বোধনের পর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রায় ১৬ বছর ধরে দেশে মাদক, অস্ত্র উদ্ধার, সন্ত্রাস এবং জঙ্গি দমনে কাজ করছে র‌্যাব।

মানুষের কাছে র‌্যাব এখন আস্থার প্রতীক। ক্যাম্প স্থাপনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সকলের সহযোগিতা পাওয়ার কথা উল্লেখ করে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণেও সেভাবে সকলের সহযোগিতা চাই। র‌্যাব-৭ অধিনায়ক লে. কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল বলেন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও কাজের পরিধি বাড়াতে নতুন এ ক্যাম্প চালু করা হয়েছে। এ ক্যাম্পের মাধ্যমে মাদক উদ্ধার, অস্ত্র উদ্ধার, সন্ত্রাস ও অপরাধ দমনের কাজ আরো তরান্বিত হবে। গতি আসবে কাজে।

নতুন এ ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. মুশফিকুর রহমান বলেন, অপরাধের মাত্রা বিবেচনা করে হাটহাজারী ক্যাম্প চালু হয়েছে। এ ক্যাম্পের মাধ্যমে উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারী, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, ফটিকছড়ি, কাপ্তাই, রাঙামাটির অপরাধ নিয়ন্ত্রণ সহজ হবে। ক্যাম্পের অবস্থানের কারণে মুভমেন্ট সহজ হবে।

র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. মশিউর রহমান জুয়েলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন-র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন্স) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, অতিরিক্ত ডিআইজি মো. জাকির হোসেন খান, চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক ও হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম রাশেদুল আলম।