হাটহাজারীতে ধলই ইউনিয়নের কর্মহীন মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে “মানবিক ধলই’

মো: রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে করোনা প্রাদুর্ভাবে দেশে – প্রবাসে কর্মহীন হয়ে পড়া পরিবারের পাশে দাড়িয়েছে উপজেলার ধলই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল মনসুর।

করোনা মহামারির শুরুতে প্রাথমিকভাবে ধলইয়ের প্রায় ১৬০০ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী ভালবাসা বিতরণ করেন সাবেক এই চেয়ারম্যান।

এরই ধারাবাহিকতায় ২য় ধাপে কর্মহীন ও প্রবাসী মধ্যবিত্ত পরিবারে খাদ্যসামগ্রী সহায়তা করতে দেশে অবস্থানরত তার শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিয়ে গড়ে তুলেন “মানবিক ধলই” নামক একটি তহবিল। শুরুতেই এই “মানবিক ধলই” তহবিলে ৫০ হাজার টাকার অনুদান দেন মানবিক ধলইয়ের চেয়ারম্যান জনাব আবুল মনসুর।

করোনা প্রাদুর্ভাবে কষ্ট পাওয়া পরিবারের জন্য সহায়তা দিতে জনাব আবুল মনসুর এর আহবানে ধীরে ধীরে এই সংগঠনের মাধ্যমে দেশে -বিদেশে সচ্ছল শুভাকাঙ্ক্ষীরা আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসেন। ৭ এপ্রিল হয়ে শুরু হওয়া এই মানবিক ফাউন্ডেশনে অদ্যাবধি প্রায় ১৩ লাখ টাকা তহবিলে জমা হয়।

এই ব্যাপারে “মানবিক ধলইয়ের” চেয়ারম্যান আবুল মনসুর বলেন, এই মহামারিতে ধলইয়ে কর্মহীন ও অসহায় পরিবারে প্রাথমিকভাবে নিজ অর্থায়নে ১৬০০ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী ভালবাসা দিয়েছি, কিন্তু লকডাউন দীর্ঘ হওয়ায় মানুষের চাহিদানুপাতে এলাকার শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিয়ে এই তহবিল গড়ে তুলি, লকডাউন শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই তহবিলের মাধ্যমে দলমত নির্বিশেষে সকল ধলইবাসীর পাশে আছি।

প্রাথমিকভাবে এই মানবিক ধলইয়ের উদ্যোগে এলাকার সেচ্ছাসেবী তরুণদের নিয়ে প্যাকেটিং করে ঘরে ঘরে ১১০০ মধ্যবিত্ত ও প্রবাসী পরিবারে এই ভালবাসার তলে পৌঁছে দিচ্ছি, পর্যায়ক্রমে ৩০০০ পরিবার পর্যন্ত দেওয়ার সার্বিক প্রস্তুতি ও আছে আলহামদুলিল্লাহ। শুধু তাতেই সীমাবদ্ধ নয়, করোনা প্রাদুর্ভাবে ধলইয়ের অসহায় মানুষের যতক্ষণ প্রয়োজন ততক্ষণ আমাদের খাদ্যসামগ্রী ভালবাসা সহায়তা চালু থাকবে। তাছাড়া আমি হট লাইন নাম্বার চালুর মাধ্যমেও গোপনে অনেক পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন আমি ব্যক্তিগতভাবে আগেও ধলইয়ের জনগণের সুখে দুঃখে পাশে ছিলাম বর্তমানেও আছি ভবিষ্যতেও থাকব। দেশ বিদেশের সকল শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা যারা আমার ডাকে সাড়া দিয়ে মানবিক সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন।