হবিগঞ্জে মানসিক ভারসাম্যহীন ভাইকে বাড়িতে ফেরত আনতে গিয়ে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন

সুশীল চন্দ্র দাস, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে মানসিক ভারসাম্যহীন ভাইকে বাড়িতে ফেরত আনতে গিয়ে ঐ ভাইয়ের হাতেই খুন হয়েছেন আপন বড় ভাই ৷

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, আজমিরীগঞ্জ পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের পুকুড়পাড় গ্রামের (সাবেক সোনালী ব্যাংক ম্যানেজার) মানিক মোদকের ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন রিংকু মোদক(৩৫) কয়েক দিন পুর্বে পরিবারের কাউকে কিছু না বলে হবিগঞ্জ শহরে চলে যায়৷ সেখানে তার আত্মীয় রিংকুকে দেখে আজমিরীগঞ্জ রিংকুর বাড়িতে খবর দেয় ৷ তখন রিংকুর পরিবারের লোকজন বানিয়াচং উপজেলার আদর্শ বাজারে ব্যবসায় নিয়োজিত রিংকুর বড় ভাই পিংকু মোদক(৩৭) কে ফোনে বিষযটি জানায় ৷ পিংকু মোদক তখন হবিগঞ্জ গিয়ে তার ভাই রিংকুকে বাড়িতে নিয়ে আসবে বলে তার পরিবারকে জানায় ৷

সেই প্রেক্ষিতে পিংকু তার ভাইকে ফেরত আনতে ১৮ জুলাই দুপুরে হবিগঞ্জ যায়, সেখানে ঘাঠিয়া বাজারে তার সৎ মামা লিটন কুড়ির দোকানের সামনে রিংকুকে পেয়ে বাড়িতে ফেরত নিয়ে আসতে চাইলে মানসিক ভারসাম্য হীন রিংকু তার কোমড়ে থাকা ছুরি দিয়ে তার বড় ভাই পিংকুকে ছুরিকাঘাত করে ৷

ছুরিকাঘাত করে ভারসাম্যহীন রিংকু হাতে থাকা ছুরি নিয়ে ( বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ) সার্কেল অফিসে গিয়ে তার ভাইকে সে হত্যা করে এসেছে বলে চিল্লাতে থাকে ৷ পরে সার্কেল অফিসের কম্পিউটার অপারেটর আব্দুল মুমিন রিংকুকে আটক করে সদর থানায় প্রেরণ করে ৷

অপর দিকে ছুরির আঘাতে পিংকু সেখানেই লুটিয়ে পড়ে ৷ তখন স্হানীয়রা আহত পিংকুকে দ্রুত উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে পিংকুর অবস্হা অবনতির দিকে যায় ৷

পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য পিংকুকে সিলেট প্রেরণ করা হয় ৷ রোববার (১৯ জুলাই ) বিকাল আনুমানিক ৫টায় সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্হায় পিংকু মৃত্যুবরণ করে ৷

এ বিষয়ে (বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ) সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মোঃ সেলিম ঘঠনার সত্যতা স্বীকার করেন ৷