হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে জলসুখায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক আটক

সুশীল চন্দ্র দাস, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ জলসুখা ৩নং সদর ইউনিয়নে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের দায়ে ধর্ষণকারী মহসিনকে(২৮) আটক করেছে আজমিরীগঞ্জ থানা পুলিশ। জানাযায়,জলসুখা ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আজমান মিয়ার পুত্র মহসিন একি ইউনিয়নের পাঠুলীপাড়া গ্রামে বিয়ে করে শ্বশুর বাড়িতেই বসবাস করে আসছিল।

শ্বশুর বাড়িতে থাকার সুবাদে জনৈক ব্যক্তি অর্থাৎ ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামির সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তুলে ধর্ষক মহসিন।বন্ধুত্বের সুবাদে প্রায়ই ধর্ষিতার বাড়িতে আসা যাওয়া করত মহসিন।

জীবিকার তাগিদে গৃহবধূর স্বামি কিছুদিন পূর্বে ঢাকায় চলে আসলে সেই সুযোগে ধর্ষণকারী মহসিন গত ১১ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার)সন্ধা ৭ টার দিকে গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে এবং ঘর খালি থাকায় মুখে গামছা পেঁচিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ধর্ষক মহসিন।

পরে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মহসিনের শ্বশুর বাড়ির লোকেরা গৃহবধূকে চাপ দেয় এক পর্যায়ে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়ে গেলে উক্ত বিষয় নিয়ে পাঠুলীপাড়ায় দুটি দলে বিভক্ত হয়ে পড়ে।এসময় স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে এস আই জয়ন্ত তালুকদারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল পাঠুলীপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে (ড্রেনের হাটি থেকে) শুক্রবার মধ্যরাতে ধর্ষক মহসিনকে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে ধর্ষণের স্বাীকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে আজমিরীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এবিষয়ে আজমিরীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোশারফ হোসেন তরফদার ঘটনার সত্যতা স্বাীকার করে বলেন- ধর্ষণের স্বীকার গৃহবধূ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে।

ধর্ষককে আটক করা হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।এবং গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।