স্বাস্থ্যকর্মীদের রোজা না রাখার ফতোয়া দিল আরব আমিরাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চলতি সপ্তাহ থেকেই মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের পবিত্র মাস রমজান শুরু হচ্ছে। আর বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার এই পবিত্র মাসে ইবাদতেও কিছুটা শিথিলতার পদক্ষেপ নিয়েছে অনেক দেশ।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে এ বছর পবিত্র রমজানে তারাবিহসহ অন্যান্য নামাজ বাড়িতেই আদায় করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যেসব স্বাস্থ্যকর্মী করোনা রোগীদের সেবা দিচ্ছেন তাঁদের রোজা না রাখারও ফতোয়া দেওয়া হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ আমিরাত ফতোয়া কাউন্সিল স্থানীয় সময় রোববার বিবৃতি দিয়ে এই নির্দেশনা জারি করেছে।

ফতোয়ায় বলা হয়েছে, ‘সুস্থ মানুষ অবশ্যই রোজা রাখবেন কিন্তু যারা সামনে থেকে কোভিড-১৯ রোগীদের সেবা দিচ্ছেন তাঁদের রোজা রাখার প্রয়োজন নেই।’

স্বাস্থ্যকর্মীদের রোজা না রাখার পরামর্শ দিয়ে ফতোয়া কাউন্সিল বলছে, ‘যদি স্বাস্থ্যকর্মীরা মনে করেন রোজা রাখলে তাঁরা নিজেরাই অসুস্থ হয়ে পড়বেন কিংবা তাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাবে তাহলে রোজা রাখার প্রয়োজন নেই। কেননা করোনায় কোনো রোগীর মৃত্যু না হওয়ার বিষয়টি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

দেশটির সর্বোচ্চ ওই ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রমজান মাসু জুড়ে মুসলিমদের অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। এমনকি ঈদ-উল-ফিতরের ক্ষেত্রে একই নির্দেশনা প্রযোজ্য। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আমিরাতে এরই মধ্যে সব ধরনের উপাসানলয়ে প্রার্থনার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে।

ফতোয়া কাউন্সিলের বিবৃতি অনুযায়ী, ‘জমায়েতের সঙ্গে প্রার্থনা করা হলে মানুষের জীবন হুমকির মুখে পড়বে। ইসলামে কঠোরভাবে এর বিরুদ্ধে নিষেধ রয়েছে।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে এখন পর্যন্ত সাত হাজার ২৬৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৪৩ জন মারা গেছেন।