সৈয়দপুরে উপজেলা আওয়ামীলেগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে যুবলীগের সংবাদ সম্মেলন

সাদিকুল ইসলাম, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি: নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক দিলনেওয়াজ খানকে খুনি, যুদ্ধাপরাধী রাজাকারের সন্তানসহ মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে সংবাদ প্রকাশ করায় সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

রবিবার ( ১৬ আগষ্ট) শহরের মূর্তুজা মিলনায়তনে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সৈয়দপুর উপজেলা শাখা ওই সংবাদ সম্মেলন করে। এতে লিখিত বক্তব্য বলেন, সৈয়দপুর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি দিলনেওয়াজ খান ।

বক্তব্যে তিনি বলেন,দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করে নিজের স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন যে অভিযোগ করেছেন সেটি মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এ অভিযোগের তিল পরিমাণ সত্যতা প্রমান করতে পারবেন না তিনি। আমি একজন সফল ব্যবসায়ী। নীলফামারীতে উত্তরা ইপিজেড আমার বিশাল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এছাড়া পাথরের ব্যবসা করে আসছি দীর্ঘ দিন থেকে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মুক্তিযোদ্ধারা রাজাকারের যেসব তালিকা প্রকাশ করেছেন তাতে আমার বাবার নাম উল্লেখ হয়নি। অথচ সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুকল হক মহসিন আমার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করতে খুনি, যুদ্ধাপরাধীর সন্তান বলে আখ্যায়িত করেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমার বাবা নঈম খানকে সৈয়দপুরের ৪৫০জন হিন্দু মাওয়ারিদের (ট্রেন ট্রাজেডি) গণ্য হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা বলা হয়েছে। ১৯৭১ সাল থেকে ২০১৯ পর্যন্ত কেউ কোনো দিন আমার বাবাকে রাজাকার বলে আখ্যায়িত করতে পারেননি। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ গুলো শত ভাগ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। আমি তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ নেতা ও সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুল মোমিন, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জোবায়দুর রহমান শাহী। এতে উপস্থিত ছিলেন, যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ, যুগ্ন আহবায়ক মো. ফিরোজ সরকার,

আওয়ামীলীগ নেতা কৃষিবিদ মবিন সরকার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম রয়েল, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিফাত সরকার, ছাত্রলীগ নেতা শেখ সোহাগ, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল হাফিজ হাপ্পু, সাধারণ সম্পাদক রোবায়ত হোসেন মিন্টু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আরিফুর আনোয়ার সুুুমন, ওমর ফারুক সাগর প্রমূখ।