সৈয়দপুরে অবৈধ পলিথিন কারখানাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

সাদিকুল ইসলাম সাদিক, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরে একটি অবৈধ পলিথিন কারখানা র‌্যাব-১৩ সিপিসি-২ এর অভিযানে ৪ হাজার কেজি নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধার করা হয়েছে।অভিযানে অবৈধ পলিথিন উৎপাদন ও বাজারজাত করার দায়ে কারখানা মালিক মো. তারিক ইকবালকে (২৫) ভ্রাম্যমান আদালতে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. রমিজ আলম ১৯৯৫ সালের পরিবেশ আইন ১৫/১ ক্রমিকের ৪ ধারা মোতাবেক অবৈধ পলিথিন উৎপাদন ও বাজারজাত করার দায়ে ওই জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ দেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) শহরের চাঁদনগর এলাকায় ঘন্টাব্যাপি র‌্যাব-১৩ সিপিসি-২ ও পরিবেশ অধিদপ্তর যৌথভাবে ওই অভিযান পরিচালনা করে। র‌্যাব-১৩ এর এএসপি ইমরান খান ও পরিবেশ অধিদপ্তর রংপুর জোনের পরিদর্শক কাজী সাইফুদ্দিন অভিযানে নেতৃত্বে দেন।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে সৈয়দপুর শহরের চাঁদনগর এলাকার পলিথিন ব্যবসায়ী আসলামের ছেলে তারিক ইকবাল তার বসত বাড়িতেই গোপনে কারখানা স্থাপন করে বিভিন্ন নিষিদ্ধ পলিথিন উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছিলেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পরে অভিযানে জব্দকৃত বিপুল পরিমাণ অবৈধ পলিথিন উদপাদনের প্রধান উপকরণ দানাদার পাউডার ১ হাজার ৭৫ কেজি, নিষিদ্ধ পলিথিন (রোলসহ) ২ হাজার ৫শ’ কেজি এবং পলিব্যাগ ৪২৫ কেজি জব্দ করে ধংশ করা হয়।

বিকালে অভিযান সম্পর্কে সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ্যে ব্রিফি করেন ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. রমিজ আলম জানান, পরিবেশের জন্য চরম ক্ষতিকারক নিষিদ্ধ পলিথিন উৎপাদন ও বিপননের দায়ে কারখানা মালিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভবিষ্যতে পলিথিন উৎপাদন ও বাজারজাত করলে কঠোর আ্ইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি।