সুন্দরবনে দস্যুদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে শরণখোলা পুলিশ

মাহফুজুর রহমান বাপ্পী, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ সুন্দরবনের বিষ দস্যুদের দমনে অভিযান শুরু করেছে শরণখোলা থানা পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে শরণখোলা রেঞ্জের শরণখোলা থেকে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযানের নেতৃত্বে দেন মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রিয়াজুল ইসলাম, শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ, এসআই আমির হোসেনসহ থানার অন্যান্য অফিসার ও পুলিশ সদস্যরা।

সুন্দরবন কেন্দ্রীক অপরাধকে ঘিরে বিশেষ এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ বলেন, সুন্দরবন এলাকায় যারা বিষ দিয়ে মাছ ধরে, হরিণ শিকার করে, এছাড়াও বনদস্যুদের নির্মূল করতে আমাদের অভিযান চলবে। শরণখোলা-মোরেলগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রিয়াজুল ইসলাম বলেন, বনদস্যু জলদস্যু দমমে শরণখোলা পুলিশের পক্ষ থেকে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে ।

বাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, সুন্দরবনকে আমরা সেই রকম একটি সুন্দরবন রুপান্তরিত করবো, যেটি অর্থনৈতিক কর্মকান্ড থেকে শুরু করে সমস্ত কর্মকান্ডের কেন্দ্র বিন্দু হবে। সেটি করতে গেলে শুধু সুন্দরবনে বিষ প্রয়োগকারীদের বিরুদ্ধে নয়, যারা বনদস্যুতা করে, বাঘ-হরিণ শিকার করে তাদের প্রতি আমাদের কঠিন নিষ্ঠুরতা থাকবে। তাদের সবার প্রতি আমাদের একটাই কথা থাকবে তোমরা ভালোর পথে ফিরে আসো, নয়তো তোমাদের কষ্ট ভোগ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আইজিপি ও ডিআইজি মহোদয়ও চাইছেন সুন্দরবনকে আমরা বসবাস উপযোগী ও ট্যুরিস্ট উপযোগী করে তুলি। এছাড়া সিডর, আইলা, ফনি ও আম্পানসহ সকল দুযোর্গ থেকেই সুন্দরবন আমাদেরকে মায়ের মত আগলে রাখে, তাই এ বনটাকে সুরক্ষা দেয়াই আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য।

সকল ধরণের অপরাধ দমনে সাগর-সুন্দরবনে অভিযানের ক্ষেত্রে পুলিশের সক্ষমতার বিষয়ে তিনি বলেন, বর্তমান সক্ষমতা যা আছে, আমরা তা নিয়ে শুরু করছি। প্রয়োজনে আধুনিক ও দ্রুতগামী নৌযান ভাড়া করবো। অভিযানের প্রয়োজনীয় জলযান সংগ্রহ ও অবকাঠামো নিমাণের পরিকল্পনা তৈরি করবো।## বাগেরহাট