সিলেট শামসুদ্দীন হাসপাতাল অনিয়ম এখন নিয়মের ঘরে বন্দি

এনাম রহমান, সিলেট জেলা প্রতিনিধি: মানুষের জীবন মরন নিয়ে যেখানে চিকিৎসা চলছে করােনার-সেখানেই নিয়ম লঙ্ঘন। এই অবস্থা এখন নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার। অবস্থাদৃষ্টে স্বভাবতই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে সর্বত্র সাধারণ মানুষের ভিতরে এক অজানা আতঙ্ক বিরাজ করছে । এমনি এক অভিযােগ উঠেছে সিলেটের করােনা হাসপাতাল খ্যাত শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের উপর। শুরু থেকেই অনিয়ম যার নিত্যসঙ্গী।
তবুও করােনাকাবুতে অসহায় সিলেট বাসীর করােনা মােকাবেলায় একমাত্র নির্ভরতা এই হাসপাতাল। করােনা চিকিৎসার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে নতুন কোনাে হাসপাতাল চালু না হওয়ায় এটিকেই বেছে নিতে হচ্ছে সিলেট অঞ্চলের মানুষকে। করােনা মােকাবেলায় প্রথম শর্ত হচ্ছে স্বাস্থবিধি যথাযথভাবে অনুসরন করা। আর এই বিষয়টি যেখান থেকে বেশি করে প্রচার করা হচ্ছে-তার একটি হলাে শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতাল।
কিন্তু খােদ ওই হাসপাতালই তােয়াক্কা করছেনা স্বাস্থবিধি।করােনা। পরীক্ষার জন্য প্রতিদিন নমুনা প্রদানকারীদের ঢল নামে এই হাসপাতালে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে ওই হাসপাতালে করােনা টেস্টের জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চলে নমুনা সংগ্রহ। আজ সােমবার (১ জুন) সরেজমিনে দেখা যায়- ওই হাসপাতালের নমুনা দিতে আসা ব্যক্তিদের মধ্যে নেই শারিরীক দুরত্ব।
অনেকের মুখে মাস্ক থাকলেও হাতে নেই গ্ল্যাভস। নারী-পুরুষরা একে অন্যের সাথে ঘেঁষাঘেষি করে দাঁড়িয়ে আছেন। যা করােনা সংক্রমন আরাে বাড়াতে পারে। কারণ- যারাই টেষ্ট করাতে আসেন তাদের অনেকেরই রিপাের্ট করােনা পজিটিভ আসে, অনেকের নানা উপসর্গ দেখা দেয়। তাদের সাথে শারিরীক দুরত্ব বজায় রেখে না দাঁড়ালে করােনা সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে চাইলে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক সুশান্ত মহাপাত্র ব্যস্ত আছেন। জানিয়ে মােবাইল সংযােগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।  চ্যানেল এস।