সিলেট শহরতলি খাদিমপাড়া হাসপাতালে শনিবার থেকে করোনা চিকিৎসা শুরু

এনাম রহমান, সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটে সরকারি বেসরকারি যে কয়টি হসপিটাল করোনা চিকিৎসা দিয়ে আসছে ইতিমধ্যে একটি হসপিটালে সিট খালি নেই। এদিকে সিলেট শহরতলির খাদিমপাড়া ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও সন্দিগ্ধদের চিকিৎসা কার্যক্রম শনিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে।

এটা সত্যি ভালো খবর তবে সিলেটে যে হারে করোনা আক্রান্ত রোগী বাড়ছে সে তুলনায় কিছু নেই। ইতো মধ্যেই প্রয়োজনীয় যা যা সর্মজাদী দরকার হাসপাতালে পৌঁছেছে। চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ইতো মধ্যেই নার্স ও স্বেচ্ছাসেবী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের মহাসচিব কর্নেল (অব.) আবদুস সালাম বীরপ্রতীক।

প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে হাসপাতালটিকে কোভিড আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে রূপ দিতে সহায়তা করছে সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশন। সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের মহাসচিব কর্নেল (অব.) আবদুস সালাম বীরপ্রতীক জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও সন্দিগ্ধদের সেবা দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি তারা গ্রহণ করছেন। তিনি জানান, ফাউন্ডেশনের সভাপতি সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান, যুক্তরাষ্ট্রের টেম্পল ইউনিভার্সিটির মেডিসিন ও নেফ্রোলজি বিভাগের অধ্যাপক ও ফিলাডেলফিয়ার ড্রেক্সেল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ডা. জিয়াউদ্দিন আহমদের।

তত্ত্বাবধানে দেশ বিদেশের চিকিৎসকরা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা ও পরামর্শ প্রদান করবেন। আনুষঙ্গিক ব্যয় নির্বাহের জন্য ইতোমধ্যে বড় অঙ্কের একটি তহবিলও গঠন করেছে কিডনি ফাউন্ডেশন। সিলেটের বিশিষ্টজনেরা এটাকে সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের মহতী উদ্যোগ বলে আখ্যায়িত করেছেন। সিলেটে বর্তমানে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল থেকেই শুধু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও সন্দিগ্ধদের চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। কিন্ত পরিস্থিতি পর্যালোচনায় সিলেটে যে হারে রোগী বৃদ্ধির পাচ্ছে সেই আশঙ্কা থেকে বিকল্প ভাবতে থাকে সিলেটের প্রশাসন। এক্ষেত্রে আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসে সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশন।