সিলেট জগন্নাথপুর সড়ক ভেঙে যানবাহন চলাচল বন্ধ

এনাম রহমান, সিলেট জেলা প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ জেলার অন্তর্ভুক্ত জগন্নাথপুরের অফিস আদালত ছাড়া তাদের সুনামগঞ্জ জেলা শহরে যাওয়ার দরকার পরে না। ব্যাবসা বানিজ্য শপিংসহ সবকিছু করতে হয় সিলেটের সঙ্গে, সিলেট জগন্নাথপুর মহাসড়কের আটঘর এলাকায় বিকল্প সংযোগ সড়ক ভেঙে যাওয়ায় ৩দিন ধরে সরাসরি যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

সড়কে চলাচলকারী যানবাহন ও সকল জনসাধারণ ভোগান্তিতে শেষ নেই। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কের জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের আটঘর এলাকায় বিকল্প সংযোগ সড়কটির একাংশ গত মঙ্গলবার (০২ জুলাই) বিকালে ধসে পড়ে। যে কারণে সিলেটের সঙ্গে সরাসরি যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। এতে করে জনদুর্ভোগ চরমে উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে সংস্কার কাজের জন্য পুরনো ঝুঁকিপূর্ণ সেতু ভেঙে দিয়ে বিকল্প সংযোগ সড়ক করা হয় আটঘর এলাকায়। কাজের মান নিম্নমুখী হওয়াতে সংযোগ সড়ক ভেঙে পড়েছে। সড়কে বেড়েছে জনভোগান্তি।

দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি সংস্কারহীন হয়ে পড়ায় যান চলাচলে অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। এরমধ্যে বিকল্প সংযোগ সড়কটি ভেঙে যাওয়ার কারণে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার জানান, মালবাহী একটি ট্রাক সড়কের গর্তে দেবে যায়। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সংযোগ সড়ক। তবে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানে মেরামতের কাজ চলছে আশাবাদী খুব শীঘ্রই সমাধান হবে। এদিকে ব্রিজের ডাইভারশন ভেঙে গিয়ে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটার প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্থানটি পরিদর্শন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম ভাঙা স্থানটি পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে পরিকল্পনা মন্ত্রীর নির্দেশে ভাঙ্গা অংশ মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করার জন্য পুরোদমে কাজ চলমান আছে। রাস্তাটি চলাচল উপযোগী করার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কের উন্নয়ন কাজের বরাদ্ধটি পরিকল্পনা মন্ত্রী মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পাওয়া গেছে।

তিনি আরো বলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী মহোদয়ের প্রচেষ্টার কারণেই ঠিকাদার সংশ্লিষ্ট জটিলতা নিরসন করা সম্ভব হয়েছে। জনগণের চাহিদার কথা বিবেচনা করে মন্ত্রীর নির্দেশে করোনা পরিস্থিতিতেও পুরোদমে উন্নয়ন কাজ এগিয়ে চলছে। তবে রাস্তার উন্নয়ন কাজ চলমান অবস্থায় যাতায়াতের কিছুটা বিঘ্ন ঘটায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি।