সিলেটে সংস্কৃতিকর্মীদের ‘কলের গাড়ি’ চালিয়ে যাচ্ছে খাদ্যসহায়তা

সিলেট প্রতিনিধি: সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদের খাদ্যসহায়তার জন্য ‘কলের গাড়ি’ অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশু। বুধবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে চ্যানেল এস’কে তিনি এ তথ্য জানান।

আগামীতেও এ কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়ে উভয় পরিষদের পক্ষে মিশফাক আহমদ মিশু জানান; আমরা শুরু থেকে মানুষের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছি। আগামীতেও এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

যতদিন আমাদের পক্ষে সম্ভব হবে আমরা আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখব। কিন্তু সংস্কৃতি কর্মীদের কয়েকজন আলাদা ভাবে খাদ্যসামগ্রী সহায়তার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তারা কিছুদিন তাদের কার্যক্রম চালানোর পর এখন বন্ধ করে দিয়েছেন।

এ খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ায়। অনেকেই মনে করছেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদ ও সাংস্কৃতিক জোটের যে কার্যক্রম তা বন্ধ হয়ে গেছে। তাই আমরা বলব বিভ্রান্ত হবেন না। সম্মিলিত নাট্য পরিষদ ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। আমরা আমাদের জায়গা থেকে আগামীতেও এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখবো।

মিশফাক আহমদ মিশু আরো বলেন, রমজান উপলক্ষে আমাদের খাদ্যসামগ্রী তালিকায় কিছুটা পরিবর্তন আনবো। চেষ্টা করবো রমজানের প্রয়োজনীয় দ্রব্য সংযুক্ত করার।

মিশু আরো বলেন, আমাদের নির্ধারিত ফোন নম্বরে ফোন করে যে কেউ সাহায্য চাইতে পারেন আবার ফোন করে সাহায্য পাঠাতেও পারবেন। সাহায্য পাঠানোর জন্য ০১৭১১-৪৬৯৭১৫ (বিকাশ, পার্সোনাল), আর সাহায্য চাইতে কল করতে পারেন দুপুর ১২ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত ০১৭২৯- ২০০৯৮৪ এ নম্বরে।

মূলত করোনা পরিস্থিতিতে সিলেটের মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষের খাদ্য সংকট দূর করতে করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকে কাজ করে আসছে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ। ফোন কলের মাধ্যমে মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে তারা।

এ কাজে একাত্মততা প্রকাশ করে সংযুক্ত হয়েছে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ। শুরুতে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ একক ভাবে কাজ শুরু করলেও এখন সিলেটের সংস্কৃতি আন্দোলনের সবচেয়ে বড় শক্তি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সিলেট ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট একত্রে কাজ করে যাচ্ছে।