সিলেটে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করলেন পুলিশ সুপার: এসপি অফিসসহ ১১ থানাতে বসালো জীবাণুনাশক টানেল

এনাম রহমান, সিলেট জেলা প্রতিনিধি: সিলেটে পুলিশ সুপার কার্যালয়সহ ১১টি থানায় জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করলেন সিলেট জেলা পুলিশ। করোনা ভাইরাস থেকে পুলিশ সদস্য এবং জনসাধারণকে সুরক্ষিত রাখতে এ উদ্যোগ নিয়েছেন সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন। পুলিশ সুপার কার্যালয়সহ সব থানায় একযোগে সম্পূর্ন সয়ংক্রিয় এই জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করা হয়। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখার সাথে সাথে এর সংক্রমণ প্রতিরোধে মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরী সহ কোয়ারেন্টাইন, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করা আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতাল প্রেরণসহ নানাবিধ কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ।

এছাড়াও লকডাউনের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে পুলিশের নিজস্ব উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী সরবরাহ করে যাচ্ছেন। এবার এসপি কার্যালয়সহ ১১টি থানায় জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন করার ব্যতিক্রমি পরিকল্পনা ও উদ্যোগ নেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন। করোনাকালে পুলিশের এরকম মানবিক কাজ দেখে পুলিশ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারনা একেবারেই পাল্টে গেছে। মানুষের জন্য এসব কাজ করতে গিয়ে নিজের অজান্তেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যাচ্ছে পুলিশ। সারা দেশে ইতোমধ্যেই পাঁচ হাজারের বেশি পুলিশ সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছেন ১৫জন পুলিশ সদস্য।

এরই ধারাবাহিকতায় সিলেট জেলা পুলিশে কর্মরত প্রায় পঞ্চাশের উর্দ্ধে পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের সুচিকিৎসার পাশাপাশি অন্যান্য সদস্যদের সুরক্ষিত রাখতে ইতোমধ্যেই নানাবিধ পরিকল্পনা গ্রহন করেছে জেলা পুলিশ। পুলিশ সদস্যদের মনোবল চাঙ্গা রাখতে কখনো পুলিশ সুপার নিজে কিংবা অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগন নিয়মিত প্রত্যেকটি থানায় পুলিশ সদস্যদের ব্রিফ করেছেন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বারাতে ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ ফলমূল পুলিশ সদস্যদের মাঝে বিতরন করেছে।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম জানান, বর্তমান প্রেক্ষাপটে জনগনকে সুরক্ষিত রাখা সহ পুলিশ সদস্যদের নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে সর্বোচ্চ গুরত্ব দেয়া হচ্ছে। পুলিশ সদর দপ্তর সহ জেলা পুলিশের উদ্যোগে ইতোমধ্যে পুলিশ সদস্যদের সুরক্ষিত রাখতে ইতিমধ্যে পর্যাপ্ত সুরক্ষা সামগ্রী সরবরাহ করা হচ্ছে। পুলিশের নিকট আগত সেবা প্রত্যাশীদের সুরক্ষিত রাখতে পাশাপাশি প্রত্যেক পুলিশ সদস্যদের সুরক্ষিত রাখতে প্রতিটি থানা সহ পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ডিসইনফেক্ট টানেল স্থাপন করা হয়। পুলিশের সর্বোচ্চ সামর্থ দিয়ে চলামান করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় জনগনের পাশে থাকবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।