সিলেটে ফ্লাইট সংকটের কারণে বিভিন্ন দেশের ৩০ হাজার প্রবাসী বিপাকে

 এনাম রহমান, সিলেট  প্রতিনিধি: প্রবাসী অঘোষিত এলাকা সিলেট করোনার জন্য ফ্লাইট সংকটে বিপাকে পড়েছেন প্রায় ৩০ হাজার প্রবাসী। ফ্লাইট স্বল্পতার কারণে ফিরতে পারছেন না দুবাই ও যুক্তরাজ্যেসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা। এছাড়া ফ্লাইট বন্ধ থাকায় ভিসার মেয়াদ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন মিডিল ইস্ট এর প্রবাসীরা। সংকট উত্তরণে ঢাকা-লন্ডন ও ঢাকা-দুবাই, ঢাকা-আবুধাবি রুটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইট বৃদ্ধি ও ঢাকা-বাহরাইন রুটে বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবি এখন প্রবাসীদের প্রাণের দাবি।

অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব) সূত্র মতে, করোনা পরিস্থিতিতে ফ্লাইট সংকটে সিলেটে আটকা পড়েছেন দুবাই ও বাহরাইন ও যুক্তরাজ্যেরসহ প্রায় ৩০ হাজার প্রবাসী। এর বাইরে ইউরোপ, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের আরও অর্ধ লক্ষাধিক প্রবাসী এখন দেশে থেকে তাদের কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার জন্য রয়েছেন অধীর অপেক্ষায়। এদিকে করোনা পরিস্থিতির আগে প্রায় প্রতিদিন ঢাকা-দুবাই ও ঢাকা-আবুধাবি রুটে বিমানের ফ্লাইট ছিল স্বাভাবিক। বর্তমানে এ দুটি রুটে দুটি করে ফ্লাইট সপ্তাহে পরিচালনা করছে বিমান কর্তপক্ষ এটা যাত্রীদের চেয়ে অনেক কম।

এদিকে মারাত্মক বিপাকে পড়েছেন বাহরাইন প্রবাসীরা। এই সংকট নিরসনে ঢাকা-বাহরাইন বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবি জানাচ্ছেন আটাব নেতৃবৃন্দ। ফ্লাইট বন্ধের কারণে আটকা পড়লেও এখনো বাহরাইন সরকার ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর ব্যাপারে কোনো ঘোষণা না দেওয়ায় চরম আতঙ্কিত শঙ্কিত বাহরাইন প্রবাসীরা। এদিকে সৌদি আরব, কুয়েত ও কাতার শ্রমিক ফেরত যাওয়ার অনুমতি না দেওয়ায় ফিরতে পারছেন না প্রবাসীরা এখনো। আটাব সিলেটের সভাপতি মোতাহার হোসেন বাবুল জানান, বিভিন্ন দেশের আটকা পড়া সিলেটি প্রবাসীরা ফিরে যেতে প্রতিদিন ট্রাভেল এজেন্সিগুলোর সঙ্গে করছেন দৌড়ঝাঁপ।

প্রবাসীদের স্বার্থের কথা চিন্তা করে ফ্লাইট সংকট নিরসনে বিমানের কাছে ফ্লাইট বৃদ্ধির দাবি জানাচ্ছি আমরা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস সিলেট অফিসের ব্যবস্থাপক শাহনেওয়াজ মজুমদার জানান, যুক্তরাজ্যে প্রবাসী যাত্রীদের মধ্যে যারা রিটার্ন টিকিট কনফার্ম করছেন, ফ্লাইট সংকটের কারণে অক্টোবর-নভেম্বরের শিডিউল দিতে হচ্ছে তাদের। তিনি আরো বলেন এই মূহুর্তে ফ্লাইট বাড়ানোর কোন নির্দেশনা নেই আমাদের কাছে।