সিলেটে টানা বর্ষণে বাড়ছে সব নদীর পানি বড় ধরনের বন্যার আশঙ্কা

এনাম রহমান, সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটে টানা বর্ষণে ফলে সব নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। সুরমা, কুশিয়ারা, লােভা ও সারি নদীর পানি বেড়েছে। এর মধ্যে সুরমা এবং সারিঘাটের পানি বইছে বিপদসীমার ওপর দিয়ে।

পানি উন্নয়ন বাের্ড সিলেটের তথ্য মতে শুক্রবার (২৬ জুন) বিকেল তিনটা পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ০.১৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। উজানের পাহাড়ি ঢলে সুরমা, লোভা ও সারি নদীর পানি, সারিঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ০.১৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে কানাইঘাট, জৈন্তাপুর ও ঘোয়াইনঘাটের বেশ কিছু এলাকা মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছেন।

এছাড়া সিলেটের বাকি সব নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আজ শনিবার সকালে তা প্রবাহিত হচ্ছিল ৯.৯৬ সেন্টিমিটার। কুশিয়ারা নদীর অমলশিদ পয়েন্টে গতকাল সন্ধ্যায় পানি ছিল ১৪.০৩ সেন্টিমিটার। আজ সকালে তা বেড়ে হয়েছে ১৪.৩৫ সেন্টিমিটার। গতকাল সন্ধ্যায় কুশিয়ারা নদীর শেওলা পয়েন্টে পানি ছিল ১১.৩১ সেন্টিমিটার।

আজ তা প্রবাহিত হচ্ছে ১১.৬৩ সেন্টিমিটার। কুশিয়ারা নদীর শেরপুর পয়েন্টে গতকাল সন্ধ্যায় পানি ছিল ৭.০৬ সেন্টিমিটার। আজ ৭.৬৩ সেন্টিমিটার। কুশিয়ারা নদীর ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে গতকাল সন্ধ্যায় পানি ছিল ৯.০৭ সেন্টিমিটার। আজ সকালে ছিল ৯.১১ সেন্টিমিটার। লােভা নদীর লােভাছড়া পয়েন্টে গতকাল সন্ধ্যায় পানি ছিল ১৩.৭৮ সেন্টিমিটার।

আজ সকালে তা বেড়ে ১৪.৫৯ সেন্টিমিটারে প্রবাহিত হচ্ছিল। এ বিষয়ে সিলেট জেলা পানি উন্নয়ন বাের্ডের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী একে এম নিলয় পাশা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আগামী কয়েকদিন নদীগুলাের পানি বৃদ্ধি পাবে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ না থাকায় নদীর তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হবে।