সিলেটের সকল নদীর পানি কমলেও বাড়ছে কুশিয়ারার পানি

এনাম রহমান, সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেটের কুশিয়ারার পানি বেড়ে পানিবন্দী হয়ে পড়ছে নদী অববাহিকার এলাকা। সিলেটে নদ–নদীর মধ্যে শুধু কুশিয়ারার পানি বাড়ছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে ও দুপুরে কুশিয়ারার চারটি পয়েন্টের মধ্যে তিনটি পয়েন্টে পানি বেড়েছে।

বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে ফেঞ্চুগঞ্জ ও অমলসিদ পয়েন্টে। বিয়ানীবাজারের শেওলা পয়েন্টে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল বিপৎসীমায়। পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ‘ডেইলি ওয়াটার লেভেল ডাটা’ সূত্রে এ তথ্য জানিয়েছেন পাউবো সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ শহীদুজ্জামান সরকার। পানি বাড়ায় কুশিয়ারা অববাহিকা এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা পাউবোর।

তবে কুশিয়ারা ছাড়া সুরমা নদীসহ বাকি সব নদ–নদীর পানি কমছে। সুরমার পর কুশিয়ারা সিলেট অঞ্চলের অন্যতম বৃহত্তম নদী। এ নদীর উৎসস্থল সিলেটের জকিগঞ্জ সীমান্তের অমলসিদ এলাকা। সেখানে ভারতের বরাক নদীর মোহনা থেকে কুশিয়ারা জকিগঞ্জ হয়ে বিয়ানীবাজার, গোলাপগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, ওসমানীনগর, বালাগঞ্জ হয়ে মৌলভীবাজারের শেরপুর ও সুনামগঞ্জের রানীগঞ্জ হয়ে হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

পাউবো এ নদীর অমলসিদ, বিয়ানীবাজারের শেওলা, সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ ও মৌলভীবাজারের শেরপুর পয়েন্টে পানিপ্রবাহ পরিমাপ করে। গতকাল বুধবার শুধু ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্ট দিয়ে পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। আজ সকাল ৬টা, ৯টা ও দুপুর ১২টার পরিমাপ অনুযায়ী শেওলা, শেরপুর ও ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কমছে শেরপুর পয়েন্টের পানি।