সিলেটের রাজপথে বিএনপির কোনো কর্মসূচী নেই হতাশ নেতাকর্মীরা

এনাম রহমান, সিলেট জেলা প্রতিনিধি: সিলেটে রাজপথে দীর্ঘদিন থেকে কোন দৃশ্যমান কর্মসূচী দেয়নি সিলেট বিএনপি। সভা, সমাবেশ, কিংবা নেতা কর্মীদের উপর মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ মিছিল দলের কোন সাংগঠনিক তৎপরতা তেমন চুখে পড়েনি।

সিলেটের রাজপথে কোন দৃশ্যমান কর্মসূচী না থাকায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা হতাশায় ভুগছেন। জানা যায়, গত ৬ মাস থেকে সিলেটে বিএনপির মাঠ পর্যায়ে কোন কর্মসূচী নেই। এ বছরের জানুয়ারিতে উপজেলা কমিটি গঠন উপলক্ষ্যে কয়েকটি ঘরোয়া সভা করেন জেলার নেতৃবৃন্দ।

এছাড়া আর কোন কর্মসূচী চোখে পড়েনি গেল বছরের ২ অক্টোবর সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সিলেট জেলা বিএনপির নতুন আহ্বায়ক নির্বাচিত হন কামরুল হুদা জায়গীরদার। জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি কামরুল জেলা বিএনপির বিদায়ী কমিটির সহসভাপতি ছিলেন।

জায়গীরদারকে আহ্বায়ক করে ২৫ সদস্যের কমিটির অনুমোদন দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ কমিটির মধ্য দিয়ে পরিসমাপ্তি ঘটে আবুল কাহের চৌধুরী শামীম ও আলী আহমদ জুটির। আহবায়ক কমিটি গঠনের পর সর্বশেষ গত ২৯ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপার্সন তিন বারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি,

কিন্তু বিক্ষোভ মিছিল তেমন সফল হয়নি। বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর সোবহানীঘাট এলাকা থেকে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট প্রদক্ষিণ করে বন্দরবাজার পয়েন্টে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয়। এখানে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার সহ একাধিক সিনিয়র নেতারা বক্তব্য রাখেন।

এরপর গত ২৫ মার্চ বুধবার দুই বছরের বেশি সময় কারাভোগের পর মুক্তি পান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক তিন বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপির কিছু নেতারা বলছেন- দীর্ঘ ২ বছরেরও বেশী সময় ধরে বিএনপির আন্দোলনের একটাই উদ্দেশ্য ছিল বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। এদিকে ২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে সরকার মুক্তি দেয়। এরপর নানা কারনে বিএনপি কোন কর্মসূচী দেয়নি।

যার কারণে- সিলেট বিএনপিও কোন ধরণের কর্মসূচী পালন করেনি। তবে দেশনেত্রীর মুক্তি আন্দোলন ছাড়াও একাধিক কর্মসূচী দিতে পারতো বিএনপি। রাষ্ট্রীয় পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত, ২০২০-২০২১ সালের বাজেট, করোনা দুর্যোগের মধ্যেও দুর্নীতি, ও বাসভাড়া বৃদ্ধি, সিনহা রাশেদ হত্যা সহ নানা ইস্যুতে বিএনপি কর্মসুচী দিতে পারতো। তবে কোন কর্মসূচীই পালন করেনি সিলেট বিএনপি।

এমনকি কেন্দ্র থেকেও কোন নির্দেশনা আসেনি। এ ব্যাপারে সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার জানান, করোনা দুর্যোগ, বন্যা এসব কারণে কেন্দ্রীয় বিএনপি সকল কর্মসূচী বন্ধ ঘোষণা করা হয়। যার কারনে সিলেটেও কোন কর্মসূচী পালন করা হয়নি। কেন্দ্রের নির্দেশে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সকল ধরণের কর্মসুচী বন্ধ রয়েছে এরপর বড় ধরণের কর্মসূচী দিবে বিএনপি।