সারিয়াকান্দিতে কিশোরীকে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষনের মূলহোতা গ্রেফতার

জাফরুল সাদিক, সারিয়াকান্দি প্রতিনিধিঃ সারিয়াকান্দির ফুলবাড়ী ইউনিয়নের দহপাড়া ডোমকান্দি গ্রামে পাড়া প্রতিবেশীর পরিচয়ে বাড়িতে ঢোকার পর কিশোরীকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে ৫দিন আটকে রেখে পালা ক্রমে ধর্ষনের ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনার সাথে জড়িত পুলিশ মূলহোতা গত রাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ডোমকান্দি দহপাড়া গ্রামে সুরুতজ্জামানের বাড়িতে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় একই গ্রামের মৃত মোফাজ্জল প্রামানিকের ছেলে রফিকুল ইসলাম (২৮) প্রতিবেশীর পরিচয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে এবং তার ১৭তম মেয়ে সন্তান জান্নাতি আকতার(১৪) কে ফুসলিয়ে ঢাকা শহরে নিয়ে যায়।

সেখানে তার বড় ভাই শফিকুলের বাসাতে নিয়ে ধর্ষন করে। এরপর ওই বাসাতেই শফিকুলের শ্যালক বিল্লাল হোসেন (২৫) একা পেয়ে জান্নাতি কে ধর্ষন করে। এতে অসুস্থ হয়ে পড়লে জান্নাতিকে নিয়ে ১৬ ডিসেম্বর বাড়িতে ফিরে আসে। ঘটনাটি গ্রামের লোকজনের মধ্যে জানাজানি হরে দফায় দফায় শালিষ বৈঠক করেই কোন ফয়সালায় না আসায়,

গত ১৯শে ডিসেম্বর বাবা সুরুত জামান (৬০) বাদী হয়ে ৩জনের নাম উল্লেখ করে সারিয়াকান্দি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগটি অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে নিয়ে সারিয়াকান্দি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহীন রেজার নেতৃত্বে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই একলাছুর রহমান একদল সঙ্গিয় ফোর্সসহ ২০শে ডিসেম্বর রাত অনুমান ৩টার দিকে গাবতলী থানার দূর্গাহাটা বাজার থেকে মূলহোতা মোঃ রফিকুল ইসলাম (২৮) কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

সোমবার দুপুলে বগুড়া আদালতে তাকে চালান দেওয়া হয়েছে। পরিদর্শক তদন্ত শাহীন রেজা বলেন, মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে এবং বাদবাকী আসামীদের গ্রেফতারের জন্য জোড় পূর্বক চেষ্টা চলছে।