সাভারে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুদক কর্মকর্তা পরিচয়দানকারী প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাব-৪

মৃদুল ধর ভাবন,আশুলিয়া প্রতিনিধি :আটককৃত হারুন অর রশিদ নাটোর জেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে। সে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন অবৈধ কাজের সহায়তা এবং চাকরি দেয়ার আশ্বাস দিয়ে ভিন্ন ভিন্ন মানুষের কাছ থেকে মোটা অংঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিতো বলে জানিয়েছে র‌্যাব ৪।

র‌্যাব ৪ জানায়, সাম্প্রতিক কালে ভুয়া পরিচয় প্রদান করে অভিনব কৌশল ব্যবহার করে সাধারণ জনগনের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতারনার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এক শেণ্রীর নব্য প্রতারক চক্র। পরে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক হারুন অর রশিদকে আটক করা হয়। এসময় দুদক কর্মকর্তার ভুয়া ১টি আইডি কার্ড, র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ২টি বদলি প্রজ্ঞাপন, ১টি ওয়ারলেস সেট, ২টি কাস্টমস অফিসারের ক্যাপ, ১টি পুলিশ ক্যাপ, ৩টি জ্যাকেট, ১টি ক্রেস্ট, ৩টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব ৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার জিয়াউর চৌধুরী জানান,প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কয়েক বছর যাবৎ সাভার, আশুলিয়া, ধামরাই, লালবাগসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় নিজেকে কখনো র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, কখনো দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আবার কখনো কাস্টমস অফিসার পরিচয় দিয়ে আসছিলেন বলে স্বীকার করেছেন। মূলত সে বিভিন্ন অবৈধ কাজের সহায়তা ও চাকরি দেয়ার আশ্বাস দিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে মোটা অংঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিতো।

আটকের হারুন অর রশিদ লালবাগ থানা এবং দায়রা আদালতের মামলার পলাতক আসামি। আজ তার বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশের কাছে তাকে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানায় র‌্যাব।
অন্যদিকে রাজধানীর কল্যাণপুর বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য শামসুল আলমকে গেপ্তার করেছে র‌্যাব ৪ ।