সাপাহার শতভাগ করোনা মুক্ত উপজেলা! মাস্ক না পরায় জরিমানা ৬০০০ টাকা

গোলাপ খন্দকার, সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: সচেতনতা বৃদ্ধির কারনে নওগাঁর সাপাহার উপজেলা এখন শতভাগ করোনা মুক্ত উপজেলা এই উপজেলায় বর্তমানে নতুন কোন করোনা আক্রান্ত রোগী নেই সবাই এখন সুস্থ্য। করোনার দ্বিতীয় ধাপে সাপাহার উপজেলাকে করোনা মুক্ত রাখতে সারাদেশের ন্যায় মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৩০জনকে ৬০০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার দিনব্যাপী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যাণ চৌধুরী। এ অভিযান চালিয়ে করোনা ভাইরাস রোধে মাস্ক না পরায় সাধারন পথচারীকে জন প্রতি ২ শত টাকা করে ৩০ জনকে ৬০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য উপজেলায় করোনা সচেতনা ও প্রচারণার মাধ্যমে করোনা আক্রান্ত রোগী নেই শতভাগ করোনা মুক্ত উপজেলার খাতায় নাম লেখালো সাপাহার উপজেলা। গত ১৪ নভেম্বর নতুন একজন আক্রান্ত হয়েছিল সেও এখন সরকারী ঘোষনা মতে সুস্থ্য তাই সরকারি ঘোষনা মোতাবেক সাপাহার উপজেলায় এখন কোন করোনা আক্রান্ত রোগী আর নেই।

এবিষয়ে সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ মুহাঃ রুহুল আমিন জানান সাপাহার উপজেলায় এখন বর্তমানে করোনা আক্রান্ত রোগী নেই সবাই এখন সুস্থ্য এটা সম্ভব হয়েছে সাপাহার উপজেলার মানুষ অনেকটায় সচেতন। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সাপাহার উপজেলা প্রশাসন, থানা প্রশাসন সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারনার কারনে উপজেলাবাসী করোনার হাত থেকে নিজেকে কিভাবে সুরক্ষা করবে সেই বিষয়টি জেনেগেছে তাই এটা সম্ভব হয়েছে।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যাণ চৌধুরীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী ও জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা মোতাবেক আমরা দিনরাত পরিশ্রম করে চলেছি দিন রাত ত্রাণ সামগ্রী থেকে শুরু করে করোনা প্রতিরোধে সরকারী সেবা প্রদান করেছি আমাদের সাথে পুলিশ প্রশাসনও নিরলসভাবে কাজ করেছে। সামনে আবার করোনার দ্বিতীয় ধাপ বাংলাদেশে আসতেছে তাই আমরা করোনা প্রতিরোধে আরো কঠোর হচ্ছি সোমবার মাস্ক ব্যবহার না করার কারনে ৩০জন পথচারীকে ৬০০০ টাকা জরিমানা করেছি যাতে করে উপজেলাবাসী আরোও সচেতন হয়।