সাপাহারে সীমান্তে বিএসএফ’র ছোড়া ককটেলে আব্দুল বারী নিহত

খন্দকার আল মাসুদ রেজা গোলাপ, সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ  নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী আদাতলা বিজিবি ক্যাম্প এর অধিনে ২৪২মেইন পিলার এর ১৩ আর এলাকায় বিএসএফের ছোড়া ককটেলে আব্দুল বারী (৪৫) নামের বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। জানা গেছে, বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার পাতাড়ী আদাতলা সীমান্তে ২৪২ মেইন পিলার এলাকা দিয়ে একদল গরু ব্যবসায়ী ভারত থেকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশের চেষ্টা করলে ভারতের ১৫৯বিএসএফ খুঁটা দহ ক্যাম্পের টহলরত জোয়ানরা তাদের লক্ষ করে ককটেল নিক্ষেপ করে।

এ সময় অন্যান্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও আব্দুল বারী’র শরীরে ককটেলের আঘাত লাগে। সে আহত অবস্থায় হামাগুড়ি দিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে নো ম্যান্স ল্যান্ডের পুর্নভবা নদীতে এসে পড়ে যায়। এর পর ভোরেই তার অপর সঙ্গীরা বাড়ীতে সংবাদ দিলে পরিবারের লোকজনেরা নদীর কিনার হতে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সকাল ৭টার দিকে সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসে।

এ সময় চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। নিহতের পিছনে নিতম্বে একটি ক্ষত দিয়ে প্রচুর পরিমানে রক্ত ঝরায় চিকিৎক ও পুলিশ এটি কোন গুলির আঘাত নয় বলে ধারণা করছেন এ বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল হাই নিউটন জানান,নিহত আব্দুল বারীর ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে জানা যাবে কিসের আঘাতে তার মৃত্যু হয়েছে।

আমরা হাসপাতাল হতে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ মর্গে পাঠিয়েছে। শেষে বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট আদাতলা বিজিবি ক্যাম্পকমান্ডার সুবেদার আব্দুল হান্নান এর সাথে কথা হলে তিনি জানান যে নিহত ব্যক্তি এলাকায় একজন চিহিৃত ও বিজিবির তালিকাভুক্ত চোরাকারবারী সে ওই দিন ভারত অভ্যন্তর হতে গরু নিয়ে দেশে প্রবেশের চেষ্টা করলে ভারতের খুঁটাদহ ক্যাম্পের বিএএসএফ তাকে লক্ষ করে ককটেল ছুঁড়ে মারলে সে গুরুতর আহত হয়।

এর পর তাকে তার পরিবারের লোকজনেরা উদ্ধার করে সাপাহার হাসপাতালে নিলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে জানায়। নিহত আব্দুল বারী উপজেলার দক্ষিন পাতাড়ী গ্রামের আবুক্কর এর ছেলে বলে জানা গেছে।