সাপাহারে রাস্তার উপর আমের হাট ! ভোগান্তি কমাতে নিদিষ্ট স্থানে হাটের দাবী

খন্দকার আল মাসুদ রেজা গোলাপ, সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ কয়েক বছরের ব্যবধানে নওগাঁর সাপাহারে দেশের সর্ববৃহৎ আমের বাজার গড়ে উঠেছে প্রায় ৫শ কোটি টাকার আম কেনা-বেঁচা হয় এই আম বাজারে। আমের মৌসুমে ২ কিলোমিটারের দীর্ঘ যানজটে পড়ে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী, আম বাজারটি সদর এলাকার প্রধান রাস্তা বাদে অন্য বিকল্প নিদিষ্ট কোন স্থানে বাজারটি স্থাপনে ভোগান্তি কমতে পারে এলাকাবাসীর বলে জানান তারা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রাস্তার উপর আমের বাজার, বাইপাস সড়ক না থাকায় সদরের জিরো পয়েন্ট হয়ে উপজেলা থেকে অন্য কোন উপজেলা বা জেলায় যাওয়ার জন্য বাস ট্রাক জ্যামে দাঁড়িয়ে থাকে ঘন্টার পর ঘন্টা এবং আম বিক্রি করতে আসা ভ্যান, অটোচার্জার, টলি, পিকআপ, ভুটভুটি, স্টিয়ারিং সহ অনেক পরিবহণ প্রতিদিন প্রায় ২কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে ঘন্টার পর ঘন্টা জ্যামে দাঁড়িয়ে থেকে কোন রকম আম বিক্রি করতে পারে। বর্তমানে অসহনীয় যানজটে পরিণত হয়েছে। নেই সরকারি ভাবে ট্রাফিকিং ব্যবস্থা ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে কার্যকর ভূমিকা।

জানা গেছে, আমের রাজধানী খ্যাত নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলা ও দেশের সর্ববৃহৎ আমের বাজারে সাপাহারে আমের দাম ভালো পাওয়ায় ৩/৪ টি উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে চাষীরা আম নিয়ে বিক্রি করতে আসে সাপাহার আম বাজারে। আম বিক্রির কারণে এখানে প্রতিবছরই আমের আড়তের সংখ্যা বাড়তে থাকে। বর্তমানে প্রায় ২’শ বড় বড় আমের আড়ত রয়েছে। তবে প্রধান রাস্তা বাদে কোন নিদিষ্ট স্থানে আমের বাজার স্থাপণ করা যেত তাহলে আরও ভালো হবে। যানজটের কারনে জরুরী প্রয়োজনে এ্যাম্বুলেন্সসহ অনেক পরিবহণ পর্যন্ত আটকা পড়ে যাচ্ছে।

তাছাড়া এখন প্রতিদিন ২ কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে আমবাজার বসছে। ফলে হাসপাতাল গেট মোড় , মন্ডলমোড়,জামাননগর স্কুল মোড়, গোডাউনপাড়া মোড়ের আগ পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করতে যানবাহনের সময় লাগছে প্রায় ১/২ঘন্টা। এ অবস্থা প্রতিদিন সকাল থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলে।

সাপাহার প্রফেসর পাড়ার মমিনুল হক জানান, বেশ কিছুদিন ধরে বাজারে ঢুকা মুশকিল হয়ে পড়েছে এবং সদরের বিভিন্ন পাড়া মহোল্লার রাস্তা গুলো একাধিক খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে, রাস্তার দু’ধারে অবৈধ স্থাপনা, অটো রিক্সা, নসিমন, করিমন, ভুটভুটি যত্রতত্র দাঁড়ানো, প্রতিদিন প্রায় শতাধীক পরিবহণ যাওয়া-আসার কারণে মূলত এ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে এ যানজট নিরসনে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে হবে। এবং যানজট নিরসনে বাইপাস রাস্তা ও বিপল্প স্থানে আম বাজার স্থাপণ করলে অনেকটা যানজট মুক্ত হবে বলে জানান।

কওমি মাদ্রাসা পাড়ার রুহুল আমিন জানান, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে গোডাউন পাড়া পর্যন্ত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে রাস্তার দু-পাশে ইট বিছিয়ে হিয়ারিং করে যদি আমের গাড়িগুলো সারি করা হয় তাহলে এই যানজট থাকবে না আর রাস্তার উপর গাড়িগুলো দাঁড়াবেনা তাই দ্রুত রাস্তার ধারের দু-পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেত করে আমের বাজার স্থাপণ করা জরুরী।