সহজে ভোটকেন্দ্র-ভোটার নম্বর জানুন ও ইভিএমে ভোট দিন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আংশিকভাবে ব্যবহৃত হয়েছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম)। ঢাকার দুই সিটির মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো স্থানীয় সরকার নির্বাচনের শতভাগ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইভিএম পদ্ধতিতে। ইভিএম পদ্ধতিতে যারা প্রথম ভোট দিবেন, অনেকের কাছে বিষয়টা জটিল মনে হতে পারে। এছাড়া অনেকে ভোট কেন্দ্র খুঁজে পেতেও অসুবিধায় পড়তে পারেন।

ভোট দিতে যাওয়ার আগে চলুন জেনে নিই সহজ কিছু তথ্য।ভোটার নম্বর ও ভোট কেন্দ্র খুঁজে পেতে নিচের নিয়মগুলো অনুসরণ করুন। এসএমএস:  একজন ভোটার মোবাইলের এসএমএস অপশনে গিয়ে ‘PC NID নম্বর’ লিখে ১০৫-এ পাঠালে ফিরতি এসএমএসে তার কেন্দ্রের নাম ও ভোটার নম্বর পেয়ে যাবেন।উদাহরণ- এনআইডি নম্বর যদি 1234567890 হয়, তাকে এসএমএসে লিখতে হবে PC1234567890, তারপর পাঠাতে হবে 105 নম্বরে।অ্যাপ: ভোটকেন্দ্র খুঁজে পাওয়ার জন্য একটি মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে নির্বাচন কমিশন। https://services.nidw.gov.bd/resources/forms/PollingCenter.apk- এই লিংক থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে।  সেখানেই পাওয়া যাবে বাকি নির্দেশনা।ওয়েবসাইট: ভোটকেন্দ্র ও ভোটার নম্বর জানতে নির্বাচন কমিশনের এনআইডি উইংয়ের ওয়েবসাইটে বা https://services.nidw.gov.bd/voter_center প্রবেশ করুন ।

 

ভোটকেন্দ্রের নির্ধারিত কক্ষে প্রিসাইডিং অফিসার আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ড, আঙুলের ছাপ, ভোটার নম্বর যাচাই করে ভোটার হিসেবে নিশ্চিত করবেন। এ সময় আপনার ছবি ও তথ্যাবলি একটি মনিটরে প্রদর্শিত হবে। যাতে সব প্রার্থীর এজেন্টরা আপনার পরিচয় দেখতে পারেন।ভোট প্রদানভোটার হিসেবে শনাক্তকরণের পর গোপন কক্ষে থাকা ইভিএম মেশিনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে সচল হবে। যত পদের জন্য ভোট প্রদান করতে হবে কক্ষের ভেতরে ঠিক ততটি ডিজিটাল ব্যালট ইউনিট রাখা থাকবে। এই ইউনিটে প্রার্থীদের প্রতীক বামপাশে এবং নাম ডানপাশে দেখা যাবে।পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে তার প্রতীকের বামপাশের কালো বাটনে চাপ দিতে হবে। এ সময় প্রতীকের পাশে বাতি জ্বলে উঠবে। ভোট নিশ্চিত করতে ডানপাশের সবুজ বাটনে চাপ দিতে হবে। একই প্রক্রিয়ায় অন্যান্য পদের জন্যও ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।কোনও কারণে আপনি ভুল প্রতীক শনাক্ত করলে সবুজ বাটন চাপ দেয়ার আগে তা সংশোধন করতে পারবেন। ভুল সংশোধনের আগে ডানপাশের লাল বাটনে চাপ দিন। এতে ভুল করে দেয়া পূর্বের ভোটটি বাতিল হয়ে যাবে। ফলে নতুন করে ভোট দেয়ার সুযোগ পাবেন। সঠিকভাবে পুনরায় প্রতীকের পাশের বাটনে চাপ দিয়ে সবুজ বাটনে চাপ দিয়ে ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।সবুজ বাটন চাপ দেয়ার পর আপনার ভোট দেয়া প্রতীক ছাড়া বাকি সব প্রতীক অদৃশ্য হয়ে যাবে। এতে আপনি নিশ্চিত হবেন যে, ওই প্রতীকে আপনার ভোট প্রদান প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন হয়েছে।