শ্রীপুরে ত্রাণের দাবিতে মানববন্ধন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের আশ্বাসে ঘরে ফিরে

মোহাম্মদ আদনান মামুন, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঘরে অবস্থান করা স্বল্প আয়ের সাধারণ মানুষ ত্রাণ ও খাদ্য সহায়তার দাবিতে মানববন্ধন করেছে।

বুধবার (২২ই এপ্রিল) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার মুলাইদ গ্রামের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের রঙ্গীলা বাজার এলাকার কয়েকশ’ খেটে খাওয়া দিনমজুর, বিভিন্ন কলকারখানার শ্রমিক ও স্বল্প আয়ের সাধারণ মানুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে ত্রাণ না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের আশ্বাসে তারা ঘরে ফিরে যায়।

গার্মেন্টসশ্রমিক মালা জানান, তার স্বামী মাটি কাটার কাজ করেন। করোনা ভাইরাসের জন্য প্রায় এক মাস যাবৎ কাজে যাওয়া বন্ধ। ঘরে মজুদ বলতে যা ছিল তা শেষ হয়েছে। এখন দিনমজুর স্বামী এখন কর্মহীন অবস্থায় ঘরে অবস্থান করছেন। এ অবস্থায় স্বামী-সন্তানসহ খেয়ে না খেয়ে জীবন কাটাচ্ছি।

গৃহিনী মার্জিনা জানান, তার গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ। শ্রীপুরের রঙ্গীলা বাজার এলাকায় ভাড়া থেকে সে গার্মেন্টেসে কাজ করেন আর স্বামী ঢালাইয়ের কাজ করেন। করোনা শুরুতে বাড়িতে যেতে পারেননি। করোনার কারণে গার্মেন্টস বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরও বাস চলাচল বন্ধ থাকায় গ্রামের বাড়িতে না যেতে পেরে কর্মহীন স্বামীকে নিয়ে ভাড়া বাড়িতে থাকতে হচ্ছে। এখানকার অনেকেই খাদ্য সহায়তা পাচ্ছে, আমরা ভাড়াটিয়া বলে আমাদের খাবার দেয় না, কিন্তু আমরা যে বাড়িতে ভাড়া থাকি সেই বাড়ির মালিকদের খাবার ঠিকই দিচ্ছে।

দিনমজুর মোতাহার হোসেন জানান, আট-দশদিন আগে তালিকায় নাম উঠালেও আমরা এখনো কোনো সহায়তা পাইনি। আমরা ভাড়াটিয়া, কারখানার শ্রমিক, এলাকার ভোটার তালিকায় নাম না থাকলে নাকি আমাদের ত্রাণ দিবে না। আমরা না খেয়ে থাকলেও তাদের কোনো সমস্যা নেই। তাই আমাদের কষ্টের কথা আমাদের সরকারকে জানাতে এসেছি।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামছুল আরিফিন জানান, ঘটনার শোনার পরই ওই এলাকার আমাদের একজন প্রতিনিধি পাঠানো হয়েছে। স্বল্প আয়ের সকল মানুষের তালিকা করে খুব দ্রুতই খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হবে।