শ্রীপুরে ইয়াবাসহ আটক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান

 

মোহাম্মদ আদনান মামুন, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ্যাড. আব্দুল আজিজ তিন পিছ ইয়াবাসহ ছেড়ে দেয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। উপজেলার ধামলই গ্রামে এলাকাবাসী ইয়াবাসহ আটক করে চেয়ারম্যানের কাছে হস্তান্তর করলে থানা পুলিশ না দিয়ে ছেড়ে দিয়েছে।

বুধবার (৮ এপ্রিল ) বিকেলে মজনু নামের এক ইয়াবা ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে তিন পিস ইয়াবা কিনে পথের মধ্যে আটক করে স্থানীয় জনতা। আটককৃতরা হলো, কাওরাইদ ইউনিয়নের সোনাব গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য সুলতান উদ্দিনের ছেলে রাকিব আল মামুন (২৫) ও অটোচালক (২৮)। ইতিমধ্যে ইয়াবাসহ আটকের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগে ভাইরাল হয়ে গেছে।

কাওরাইদ ইউনিয়ন গ্রাম পুলিশ আব্দুর রশীদ জানিয়েছেন, বুধবার দুপুরে চেয়ারম্যান আমাদেরকে পাঠালে আমরা তাদেরকে তিন পিস ইয়াবাসহ পরিষদে নিয়ে আসি। চেয়ারম্যানের কাছে বড়িসহ তাদেরকে বুঝিয়ে দেই। পরে কি করেছে তা আমার জানা নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন স্থানীয় প্রতক্ষদর্শী জানিয়েছেন, মজনু স্থানীয় ইয়াবার ডিলার। সে একাধিকবার মাদক মামলায় জেল খেটেছে। আটককৃতরা মজনুর বাড়ি থেকে আসার পথে স্থানীয় জনতা তাকে হাতেনাতে আটক করে চেয়ারম্যানকে জানালে চেয়ারম্যান তাদেরকে ছেড়ে দেয়। হাতেনাতে ইয়াবাসহ আটক হওয়া আসামিদের ছেড়ে দিয়ে চেয়ারম্যান অন্যায় করেছে।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার শফিক হায়দার জানিয়েছেন, আমি এলাকাবাসীকে বলে দিয়েছি মজনু (ইয়াবার ডিলার) তার বাড়িতে লোকজন আসলে আটক করার জন্য। চেয়ারম্যান পুলিশকে না জানিয়ে ছেড়ে দেয়ার বিষয়টি ইয়াবা ব্যবসায়ী রাকিব উৎসাহ পেয়েছে। তাকে পুলিশে দেয়া উচিৎ ছিল।

চেয়ারম্যান আজিজুল হক বলেন,তাদের কাছে ইয়াবা না পাওয়ায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। যেহেতু ইয়াবা পাওয়া জায়নি পুলিশে দেয়ার প্রশ্ন আসে না। শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী বলেন বিষয়টি কেউ আমাদের জানায়নি,খবর পেলে অবশ্যই তাকে আইনের আওতায় আনা হতো।