শ্রমিক সংকটে যান্ত্রিক মেশিন দিয়ে কৃষক/কৃষানীর মুখে হাসি ফুটালেন এমপি মিলাদ গাজী

বুলবুল আহমদ নবীগঞ্জ প্রতিনিধি:   আসন্ন বোরো মৌসুমে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা কৃষকদের কাছ থেকে ২ হাজার ৩১৮ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করবে বলে লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করেছে সরকার। এজন্য উপজেলা ভিত্তিক তালিকাও প্রকাশ করেছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। শ্রমিক সংকটের কারণে ধান ঘরে তুলা নিয়ে কৃষকরা যখন দুশ্চিন্তায় ছিলেন, তখনই আশার আলো দেখিয়ে কৃষক/কৃষানীর মুখে হাসি ফটালেন এমপি মিলাদ গাজী।  নবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাওর সহ ২নং পূর্ব বড় ভাকৈর ইউনিয়ন এলাকার হাওরে সরকারী ভাবে ধান কাটার যান্ত্রিক মেশিন দিয়ে ধান কাটার উদ্বোধন করেন এমপি মিলাদ গাজী। উদ্বোধন শেষে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কৃষিখাতকে আলাদাভাবে গুরত্ব দিয়ে আসছেন। এই মেশিনের মাধ্যমে সময় এর অপচয় হবে না। বাড়তি লোকবলেরও প্রয়োজন হবে না। তাড়াতাড়ি ধান কেটে ঘরে নেওয়া সম্ভব হবে। নবীগঞ্জ বাহুবলের প্রতিটি ইউনিয়নে ১টি করে যান্ত্রিক মেশিন দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। কৃষকদের কথা চিন্তা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষকদের বিনামূল্যে সার ও বীজধান বিতরন করেছেন। এবং সরকারী ভাবে কৃষকদের কাছ থেকে আবার অধিকমূল্যে ধান ক্রয় করছেন। তিনি আরো বলেন, এবারের করোনা ভাইরাস মোকাবেলার জন্য কৃষকদের কথা চিন্তা করে সরকার ভতুর্কি দিয়ে ধান কাটার যান্ত্রিক মেশিন কৃষকদের কাছে পৌছে দিয়ে প্রমান করলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কৃষিবান্ধব সরকার। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন, নবীগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল, কৃষি অফিসার এম,কে মাকসুদুল করিম, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আক্তার হোসেন ছুবা, আওয়ামীলীগ নেতা আঃ শফি, সাজু সহ আরো অনেকেই।