শ্রমিক লীগের সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যেই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শুরু হয়েছে জাতীয় শ্রমিক লীগের সম্মেলন। সকাল ১০ টা ৪২ মিনিটে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ পাঠ ও জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় শ্রমিক লীগের সম্মেলনের কার্যক্রম। এর আগে বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেই সম্মেলনে যোগ দেন শ্রমিক লীগের নেতা কর্মীরা। এবারের সম্মেলনে প্রায় আট হাজার কাউন্সিলর ও আট হাজার ডেলিগেট দর্শক সারিতে রয়েছেন। মঞ্চে অবস্থান নিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। সম্মেলনে অধিবেশন হবে দুটি। প্রথম অধিবেশনে সাধারণ সম্পাদকের রিপোর্ট ও শোক প্রস্তাব পাঠের পর প্রধান অতিথি এবং অন্যান্যরা বক্তব্য দিবেন। এবং দ্বিতীয় অধিবেশনে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।
সাত বছর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অন্যতম ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগের ১২তম ত্রিবার্ষিক সম্মেলন। এবারের সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন হতে পারে। স্বচ্ছ ভাবমূর্তি সম্পন্ন, সক্রিয়, দক্ষ ও কর্মীবান্ধব নতুন নেতৃত্বের প্রত্যাশা করছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।
জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম এর পরিচালনায় আজকের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে তিন বিদেশি প্রতিনিধিও উপস্থিত আছেন।