শ্যামগঞ্জ-পূর্বধলা সড়কে সিএনজি ও মহেন্দ্রের মূখোমূখি সংঘর্ষে ১০ জন আহত

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ বৃহস্পতিবার (২০ আগষ্ট) শ্যামগঞ্জ-পূর্বধলা সড়কের মহিষবের প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কে এ দূর্ঘটনাটি।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানাযায় বৃহস্পতিবার সকালে একটি সিএনজি পাঁচজন যাত্রী নিয়ে পূর্বধলা যাওয়ার পথে মহিষবের নামক স্থানে পৌছঁলে বিপরীত দিক থেকে আসা আপর একটি মহেন্দ্র(সিএনজি) এর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

দূর্ঘটনায় প্রায় ১০ জন যাত্রী মারাত্নক আহত হয়েছে। এ ঘটনার পর পর স্থানীয় লোকজন আহদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে। আহতের মধ্যে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে তারা হলেন পুর্বধলা উপজেলার খাটুুয়ারী গ্রামের একই পরিবারের নাজমা (৩০), তার সন্তান নাইম(৮), তার মেয়ে মরিয়ম(৫) রাবিয়া(৬০), খলিশাউর গ্রামের খায়রুল ইসলাম (৩৫)।

দূর্ঘটনার পর পর সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায় এ সময় রাস্তার দুই পাশে শত শত ট্রাক বাস মাইক্রোবাসসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন আটকা পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দা হাজী হযরত আলী জানান হঠাৎ বিকট শব্দে সিএনজি ও মহেন্দ্রর মধ্যে দূর্ঘটনাটি ঘটে।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।আহতের মধ্যে বেশ কয়েক জনের অবস্থা আশংকা জনক। অনেকের অবস্থা খুব খারাপ। শ্যামগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর এনামূল হক দূর্ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঁচ জন ভর্তি আছে।

তাদের পরিচয় পাওয়া গেছে। রাস্তা তেকে দূর্ঘটনা কালিত সিএনজি ও মহেন্দ্র সরিয়ে পুনঃ সড়ক যোগাযোগ চালু করা হয়েছে। আহতের মধ্যে এখনও কেউ মারা যায়নি। গাড়ী দুটি জব্দ করা হয়েছে।