শ্মশানকালী মন্দিরের চুড়া ভেঙ্গে নেওয়ার চেষ্টা; ২ চোর হাতেনাতে আটক

বুলবুল আহমদ, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে একদিকে কারোনা আতংক অপরদিকে চাল চোর পাশাপাশি বাড়ি- ঘর ও দোকান পাঠগুলোতে চুরির হিড়িক পড়েছে। নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের জন্তীর গ্রামের অরুন প্রভা ভট্টচার্য্যরে বাড়ীতে শ্রী শ্রী শ্মশানকালী মন্দিরের চুড়ার পিতলের কলসী ও মুল্যাবান জিনিসপত্র চুরির সময় হাতেনাতে তোফাজ্জল হোসেন উজ্জ্বল ও অরুপ সুত্রধরকে আটক করে নবীগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। এ সময় অপর সহযোগী মুছা আহমদ পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের জন্তীর গ্রামের অরুন প্রভা ভট্টাচার্য্যরে বাড়ীতে স্থাপিত শ্রী শ্রী শ্মশানকালী মন্দিরের চুড়ায় রক্ষিত পিতলের কলসী ও আনুসাঙ্গিক মুল্যবান জিনিসপত্র গত রবিবার দিবাগত রাত ২টা ৩০মিনিটের সময় চুরি করে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয় মিল্লিক গ্রামের আব্দুল লতিফের পুত্র মুছা আহমদ।

জন্তরী গ্রামের আবু দাশের জামাতা পশ্চিম তিমিরপুর গ্রামের মৃত বিধু সুত্রধরের পুত্র অরুপ সুত্রধর ও ঘোলডুবা গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের পুত্র তোফাজ্জ্বল হোসেন উজ্জ্বল ও তাদের সহযোগীরা। রশি বেধে মন্দিরের পাশ্ববর্তী একটি কদমগাছে উঠে মন্দিরের চুড়াটি ভাঙ্গা শুরু করে। বিষয়টি বাড়ীর পাহাড়াদার শংর দাশের নজরে আসলে গৃহকর্তাসহ অন্যান্য লোকজনকে বিষয়টি ফোনে অবগত করে। এ সময় বাড়ীর লোকজন একত্রিত হয়ে হাতে নাতে তোফাজ্জল হোসেন উজ্জ্বল ও অরুপ সুত্রধরকে আটক করেন। এ সময় অপর সহযোগী মুছা আহমদ পালিয়ে যায়।

বিষয়টি গতকাল রবিবার সকালে নবীগঞ্জ থানা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ ধৃত ২ চোরকে আটক করে নবীগঞ্জ থানায় নিয়ে আসেন। এ ব্যাপারে জন্তরী গ্রামের মৃত অরুনপ্রভা ভট্টাচার্য্যরে জামাতা জিতেন্দ্র মোহন ভট্টাচার্য্য বাদী হয়ে নয় মিল্লিক গ্রামের আব্দুল লতিফের পুত্র মুছা আহমদ, জন্তরী গ্রামের আবু দাশের জামাতা পশ্চিম তিমিরপুর গ্রামের মৃত বিধু সুত্রধরের পুত্র অরুপ সুত্রধর ও ঘোলডুবা গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের পুত্র তোফাজ্জ্বল হোসেন উজ্জ্বল সহ আরো ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। উল্লেখ্য যে, আটককৃত চোরচক্র ইতিপুর্বে আরো ২ বার উক্ত মন্দিরের মুল্যাবান জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আজিজুর রহমান এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, মন্দিরে চুরির ঘটনার অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপুর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অপরদিকে নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের জন্তীর গ্রামের অরুন প্রভা ভট্টচার্য্যরে বাড়ীতে শ্রী শ্রী শ্মশানকালী মন্দিরের চুড়ার পিতলের কলসী ও মুল্যাবান জিনিসপত্র চুরির ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও জড়িতদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি নারায়ন রায় ও সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক উত্তম কুমার পাল হিমেলসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।