শেষ ইচ্ছানুযায়ীই জন্মস্থান রাজশাহীতেই চির শায়িত হলেন প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর

সৈয়দ মাসুদ, রাজশাহী প্রতিনিধিঃ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহীতে খ্রিস্টান কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান অনুরাগী শ্রোতা ও ভক্তকুল।

করোনা দুর্যোগ মধ্যে শত শত ভক্ত ও অনুরাগীরা ভিড় জমান রাজশাহী সিটি চার্চে। সেখানেই তার মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘর থেকে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিয়ে যাওয়া হয়। শেষকৃত্যানুষ্ঠান শেষে শোক ও শ্রদ্ধা জানান তার অনুরাগী ভক্তকুল ও আত্মীয় স্বজনরা।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রাজশাহীর মহানগরীর কালেক্টরেট মাঠের পাশে অবস্থিত খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের কবরস্থান। এন্ড্রু কিশোরের শেষ ইচ্ছানুযায়ী চিরদিনের জন্য তাকে বেলা সাড়ে ১১টায় সেখানে সমাহিত করা হয়। এই কবরস্থানেই তার মা, বোন ও ভাইয়ের কবর রয়েছে। তবে শুরুতে হিমঘর থেকে মরদেহ চার্চে নেওয়ার পর শেষকৃত্যানুষ্ঠান শেষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী কলেজে সর্বজন মানুষের শ্রদ্ধার জন্য রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো। মরদেহ পচনের আশঙ্কায় পরে সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়।

আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গুণী এই শিল্পী অনেকটা অন্তরালে থেকে দীর্ঘ ১০ মাস ক্যান্সারের সাথে যুদ্ধ করে গত ৬ জুলাই সন্ধ্যায় দীর্ঘ তার বোনের বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার স্মৃতি ধরে রাখতে কাজ করবেন চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতিপ্রেমীরা।

এন্ড্রু কিশোরের নামে সংগীত বিদ্যালয় ও সড়কের নামকরণসহ তার স্মৃতি ধরে রাখার ব্যবস্থা করতে চান রাজশাহীর জনপ্রতিনিধিরা।