শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে পুলিশ সদস্যসহ তিনজনের মৃত্যু

খোকন আহম্মেদ হীরা, গৌরনদী বরিশাল প্রতিনিধি: করোনার উপসর্গ নিয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রথম এক সদস্য মারা গেছেন। বুধবার (২৮ মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে মৃত্যুবরণ করা ওই পুলিশ সদস্যর নাম সোহেল মাহমুদ (৩৫)।

তিনি বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রেনিং এন্ড ওয়েলফেয়ারে কনস্টবল পদে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার পাঙ্গাশিয়া গ্রামে।

সে ওই গ্রামের আব্দুল মালেক মুন্সির পুত্র। জানা গেছে, ডায়াবেটিস, জ্বর, কাশি এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে বুধবার রাত নয়টার দিকে সোহেল মাহমুদকে শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১২টা ৩০ মিনিটের দিকে তিনি মারা যান। তবে সোহেল মাহমুদ করোনা

আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। অপরদিকে শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন দুইজন রোগী পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে মারা গেছেন।

এরমধ্যে একজনের বাড়ি বাকেরগঞ্জের কাফিলা গ্রামে পুরুষ (৫৫) ও অপরজন পটুয়াখালীর কলাপাড়ার মাছুয়াকান্দি গ্রামের বাসিন্দা নারী (৫০)। জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।