শরীয়তপুরে পদ্মার পানি বিপদ সীমার ৪৪ সেন্টিমিটার উপরে

খোরশেদ আলম বাবুল, শরীয়তপুর প্রতিনিধি: গত তিন দিন ধরে পদ্মার পানি আবারও বাড়তে শুরু করায় শরীয়তপুর জেলার জাজিরা, নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলার পদ্মা তীরবর্তী অঞ্চলসহ জেলার আরও নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়ে প্রায় সাড়ে ৪ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

গত কাল সন্ধ্যা ৭টায় জোয়ারের সময় পদ্মার পানি সুরেশ্বর পয়েন্টে বিপদ সীমার ৬৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিপদ সীমার ৪৪ সেন্টি মিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে। এতে আগে থেকেই পানি বন্দি থাকা মানুষের দুর্ভোগ আরো বেড়েছে।

দুর্গত এলাকায় আবারও দেখা দিয়েছে খাদ্য, স্যানিটেশন ব্যবস্থা, বিশুদ্ধ পানি ও পশু খাদ্যের তীব্র সংকট। সরকারি বে-সকারি ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত থাকলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অপ্রতুল বলে জানিয়েছেন বন্যা কবলিতরা। জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান ভুইয়া বলেন,

আমরা দ্বিতীয় দফায় ২৪০ মেট্রিকটন চাল, ৪লাখ টাকা, ১ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার , ৫শ’ প্যাকেট শিশু খাদ্য ও ১হাজার ১২৫ প্যাকেট গো-খাদ্য বরাদ্দ পেয়েছি। ইতোমধ্যে ১৮০ মেট্রিকটন চাল বিতরণ করাসহ অন্যান্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কাজ অব্যাহত রয়েছে। আশা করছি দুর্গত এলাকায় কোন খাদ্য সংকট থাকবে না।