লোহাগড়ায় ত্রান বিতরনে অনিয়ম

 মোঃ শাহীনুজ্জামান, লোহাগড়া, নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নে ত্রান বিতরনে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিনা ইয়াসমিন তার ইউনিয়নে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে অসহায়দের মধ্যে ত্রান বিতরন করেন। ত্রান বিতরনের সময় তালবাড়ীয়া গ্রামের ত্রান প্রাপ্ত রুপালী বেগম ত্রান নিয়ে বাহির হলে তাকে সাংবাদিকরা জিজ্ঞাসা করেন আপনাকে ত্রানের চাউল কিভাবে বিতরন করা হয়েছে তখন তিনি জানান প্লাস্টিকের বালতিতে করে ১০ কেজি চাউল দিয়েছে। চাউল অন্য ডিজিটাল মাপযন্ত্রে ওজন করলে দেখা যায় তার ওজন ৯ কেজি । নাম প্রকাশ না করার শর্তে আরও কয়েকজন বলেন, আপনারা চলে গেলে আবার ওজনে কম দেওয়া শুরু হবে। এ বিষয়ে চেয়ারম্যান নিনা ইয়াসমিনের সাথে কথা বললে তিনি জানান, গোডাউন থেকে চাউল কম দিয়েছে আমার করার কিছুই নাই। তাল বাড়িয়া গ্রামের আরমান সরদার ও অত্র পরিষদের ইউপি সদস্যগন ৯ কেজি চাউল দেওয়ার পক্ষে কথা বলে যান। তারা বলেন আপনাদের যেখানে রিপোর্ট করার আপনারা করতে পারেন। আরমান সরদার আরও বলেন প্রয়োজনে আপনি এমপির সাথে কথা বলেন । সেই সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুকুল কুমার মৈত্রকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। ঘটনাটি বেগতিক দেখে আমরা নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরাকে জানাই। এর প্রায় আধা ঘন্টা পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুকুল কুমার মৈত্র বলেন আপনারা কেন ছুতো ধরে বেড়াচ্ছেন? এ বিষয়ে লোহাগড়া খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা দিপংকর বসু বলেন আমি কোন চাউল কম দেইনি। এ বিষয়ে নড়াইল ২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, প্রধান মন্ত্রির নির্দেশ মোতাবেক আমি কাউকে ছাড় দিবো না। যারা অনিয়ম করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।