লেখক শশী থারুরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

‘দ্য গ্রেট নভেল’ প্রকাশিত হয় ১৯৮৯ সালে। উপন্যাসে ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন ও স্বাধীনতা পরবর্তী প্রথম ৩০ বছর সময়কালকে ফুটিয়ে তোলা হয় মহাভারতের আদলে।

‘দ্য গ্রেট নভেল’ এর লেখক এবং কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে ভারতের একটি আদালত। ৩০ বছর আগে তার লেখা বইটি নিয়ে তিরুবনন্তপুরম আদালতে শুনানির সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না শাশী থারু। শনিবারই তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ান‌া জারি করে আদালত।

শশীর ওই বিতর্কিত উপন্যাস ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান নভেল’ সম্পর্কে অভিযোগ, বইয়ের একটি অংশ ‘নায়ার’ মহিলাদের জন্য অবমাননামূলক। শনিবারই ছিল মামলার প্রথম শুনানির দিন। শশী থারুরের দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আদালতের জারি করা সমনে কেবল সময় উল্লেখ করা ছিল। তারিখটা দেওয়া ছিল ‌না। দফতরের তরফে আরও জানানো হয়েছে ওই পরোয়ানার বিরুদ্ধে একটি আপিল করা হবে।

শশী থারুরের ব্যঙ্গাত্মক উপন্যাস ‘দ্য গ্রেট নভেল’ প্রকাশিত হয় ১৯৮৯ সালে। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতকে ফুটিয়ে তোলা হয় মহাভারতের আদলে। কেবল স্বাধীনতা আন্দোলনই নয়। স্বাধীনতা পরবর্তী প্রথম ৩০ বছর সময়কালও উপন্যাসে ফুটিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কূটনীতিক থেকে রাজনীতিবিদ হওয়া শশী থারুর একজন স্বনামধন্য লেখকও। বহু বেস্ট সেলারের লেখক শশীর ২০১৮ সালে প্রকাশিত দুই নন ফিকশন গ্রন্থ ‘হোয়াই আই অ্যাম এ হিন্দু’ ও ‘দ্য প্যারাডক্সিকাল প্রাইম মিনিস্টার’ বেস্ট সেলার হয়েছিল। এ বছর ভারতের ২৩ জন সাহিত্যিকের অন্যতম হিসেবে সাহিত্য একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হন শশী থারুর।