লক্ষ্মীপুর সদরে সরকারি চাল মজুদ সন্দেহে গুদাম সিলগালা, ব্যবসায়ী পলাতক

নুরুল আমিন দুলাল ভূঁইয়া, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি:  লক্ষ্মীপুর সদরে সরকারি চাল মজুদ রাখার দায়ে একটি কাঁচামালের আড়ৎকে সিলগালা করা হয়েছে। শুক্রবার ৩ জুলাই আনুমানিক রাত ১২ টার দিকে লক্ষ্মীপুর জেলা শহরের ধানহাটা এলাকায় নিজাম স্টোরের আড়ৎটি সিলগালা করে দেয় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা প্রশাসন।

গোপন সুত্রে অভিযানের খবর পেয়ে আড়তের মালিক নিজাম উদ্দদিন পালিয়ে যায়। এ সময় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিলের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এদিকে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলার কমলনগর উপজেলার হাজিরহাটে তিন ব্যবসায়ীর খাদ্য গুদাম থেকে কাবিখা বরাদ্দের সরকারি ৯৫ টন চাল ও ৩৩ টন গম জব্দ করেছে জেলা প্রশাসন। প্রশাসন সূত্রে আরো জানা যায় আলতাফ রাইস এজেন্সি নামক দুইটি খাদ্য গুদাম থেকে ৯৫ টন চাল ও ২০ টন গম জব্দ করা হয়।

এ ঘটনায় দুইটি গুদাম সিলগালা করেছে প্রশাসন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মামুনুর রশিদ, সদর উপজেলা খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাইমুল কবির টিটু ও লক্ষ্মীপুর বণিক সমিতির সহ-সভাপতি আবদুল আজিজ প্রমুখ। একাধিক সুত্র থেকে জানা গেছে,গোপন সংবাদের বিত্তিতে শুক্রবার বিকেলে থেকে লক্ষ্মীপুরের বিভিন্ন স্থানে সরকারি চাল ও গম উদ্ধারের অভিযানে তৎপর হয় থানা পুলিশ। সদর উপজেলা প্রশাসন সূত্র থেকে জানা যায় ব্যবসায়ী নিজাম উদ্দিনের পেঁয়াজ-আলুর আড়তে সরকারি চাল মজুদ আছে বলে একটি নির্ভরযোগ্য গোপন সূত্রের বরাতে খবর পাওয়া যায়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ওই আড়তে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের ঘটনা আঁছ করতে পেরে এর আগেই আড়ৎ বন্ধ করে নিজাম পালিয়ে যায় । এ জন্য উক্ত আড়টিতে তল্লাশি করা সম্ভব হয়নি। সরকারি চাল মজুত রয়েছে বলে সন্দেহে ওই আড়তটি সিলগালা করে দেয় সদর উপজেলা প্রশাসন হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর জেলা সদর ইউএনও শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল এ প্রতিবেদককে জানান, তল্লাসির খবর পেয়ে আড়তের মালিক পালিয়ে যায় তাই আড়ৎ তল্লাশি করা সম্ভব হয়নি।

তাই সন্দেহজনক আড়তটি সিলগালা করা হয়েছে মাত্র। এ ঘটনায় পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি ব্যক্ত করেন। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলা হাজিরহাটে তিন ব্যবসায়ীর গুদাম থেকে কাবিখা বরাদ্দের সরকারি ৯৫ টন চাল ও ৩৩ টন গম জব্দ করা হয়েছে। এরই মধ্যে আলতাফ রাইস এজেন্সি নামে খাদ্য গুদাম থেকে ৯৫ টন চাল, ২০ টন গম জব্দ করা হয়।

এ ঘটনায় দুইটি গুদাম সিলগালা করে দেন জেলা প্রশাসন। এসময় একজনকে আটক করতে সক্ষম হয় প্রশাসন। এনিয়ে স্থানীয় প্রশাসনে তোলপাড় চলছে। এসব নিয়ে খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীরাও রয়েছেন চরম উৎকন্ঠায়।