লক্ষ্মীপুরে উন্নয়নে ভেসে গেলেও সংস্কারের ছৌঁয়া লাগেনি ভবানীগঞ্জের এই রাস্তায় জনদূর্ভোগ চরমে

নুরুল আমিন দুলাল ভূঁইয়া, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৭ নং ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চৌরাস্তা থেকে ভবানীগঞ্জ বাজারের মূল সড়কটি অবহেলায় এবং দূর্বল নেতৃত্বের কারনে সু-দীর্ঘ সময় ধরে সড়কটির এই বেহাল দশা।
এ যেন এক চরাঞ্চলের দূর্গম মেঠো পথ, নেই কোন তদারকি অযত্নে অবহেলায় সংস্কারের অভাবে রাস্তাটির এই করুন পরিনতি। এই ব্যপারে এলাকাবাসি জানান দেশ যখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে ভবানীগঞ্জে প্রবেশের মূল রাস্তাটির এই বেহাল দশা।

এই রাস্তা ধরে প্রতিনিয়ত সকাল থেকে হাজার হাজার লোকের যাতায়াত, অথছ এই রাস্তায় আজো উন্নয়নের ছৌঁয়া থেকে কেন বঞ্চিত, এই প্রশ্ন সচেতন এলাকাবাসির। পূরনো ঔতিহ্যবাহী বাজারের ব্যাবসায়ীদের নিত্যপন্য মালামাল বহনে মারাত্বক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে বাজারের ব্যবসাীদের।

রাস্তার এই বেহাল দশার সম্পকে এলাকার সচেতন যুবক মাহবুবুর রহমান (জনি) বলেন রাস্তার এই ভঙ্গুর অবস্হার কথা একাধিকবার রাজনৈতিক ও সরকারি ঊর্ধবতন কতৃপক্ষকে জানিয়েছি। তিনি আরো বলেন রাস্তাটি সংস্কারের ব্যপারে সকলে আশ্বাস দিয়ে যাচ্ছে কিন্তুু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এমনো সময় অসুস্হ্য রোগীদের দ্রুত হাসপাতালে নিতে হলে চরম ভোগান্তি পোয়াতে হয়। মাহবুবুর রহমান জনি আরো বলেন আমাদের এই এলাকার জনসাধারনের একটাই দাবী অতি দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য জনপ্রতিনিধি ও সরকারের দৃষ্টি কামনা করছি।

এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন ভোর থেকে শুরু হয় শত শত মানুষের যাতায়াত। এই রাস্তা দরে প্রতিদিন স্কুল, কলেজ,মাদ্রাসার ছাত্রছাত্রী যাতায়াত করে। ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলি হচ্ছে,
ফাতেমা আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, ভবানীগঞ্জ কারামতিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা,মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, ভবানীগঞ্জ বহু মূখী উচ্চ বিদ্যালয়, ভবানীগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভবানীগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ সহ চৌরাস্তা বাজার ইউনিয়ন পরিষদ, এবং লক্ষীপুরের যাতায়াতের একমাত্র পথ এটি। রাস্তার এই বেহাল দশায় প্রতিনিয়ত ঘটছে নানান দূর্ঘটনা। তাই স্হানীয় এম পি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা চেয়ারম্যান এর শুভ দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসি।