লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে করোনা দূর্যোগকালীন সময়ে কৃষকের ধান কেটে দিলো ছাত্রলীগ

নুরুল আমিন দুলাল ভূঁইয়া, জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউন চলাকালে ক্ষেতের পাকা ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছে রায়পুর উপজেলার অসহায় কৃষকরা।

লকডাউনে যখন মানুষ গৃহ বন্দী, ঠিক তখনই শুরু হয়েছে ধান কাটার মৌসুম। এই দূর্যোগ কালিন সময়ে অর্থের অভাব ও শ্রমিক সংকটের কারনে যখন সমস্যায় জর্জরিরিত কৃষক সমাজ, তখনই কৃষকের পাসে দাঁড়ালেন উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মীরা। সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যে যার অবস্থান থেকে করোনা ভাইরাসের কারণে অসহায়, মধ্যবিত্ত ও শ্রমজীবী মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর নিদর্শনায়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল নেতা-কর্মীদেরকে কৃষকের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশনা মতে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে জমির ধান কেটে দিচ্ছেন।

উপজেলার ৭নং বামনি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মুন্সি বাড়ীর কৃষক মানিক মিয়ার ১৮ শতাংশ জমিনের ধান কেটে দেন ৬নং কেরোয়া ইউনিয়নের ছাত্রলীগ নেতা খালেদ হোসেন,মো:-শাহাদাত, করিম হোসেন,তারেক হোসেন,এবং ৭নং বামনি ইউনিয়নের ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম সুমন,শাওন হোসেন ও আরাফাত।

ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীরা সেচ্ছায় ধান কেটে মাথায় করে কৃষকের বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কৃষক মানিক বলেন, দেশে করোনাভাইরাসের কারণে কোন প্রকার শ্রমিক ও লোকজন না থাকায় বিপাকে পড়েছিলাম। কিভাবে ধান কাটবো বা বাড়ি নিবো ও কোথায় হতে অর্থ পাবো সেই চিন্তায় ছিলাম অস্হির। কিন্তু স্বেচ্ছাশ্রমে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা আমার জমির ধান কেটে দেওয়ায় আমরা খুবই খুশি। তাই আমি ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের ধন্যবাদ জানাই।