রৌমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের বামতীর সংরক্ষণ কাজ চালুর দাবীতে বিক্ষোভ মিছল ও মানববন্ধন

রফিকুল ইসলাম, রাজিবপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের রৌমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের বামতীর (পূর্বপাড়) স্থায়ী নদীর তীর সংরক্ষণের কাজ পুণরায় চালুর দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন পালন করেছেন ব্রহ্মপুত্র নদের বামতীর (পূর্বপাড়) এর এলাকাবাসী। রবিবার (৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার বন্দবেড় ইউনিয়নের বাগুয়ারচর গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদের কিনারে এ মানববন্ধন পালন করা হয়। বন্দবেড় ইউনিয়নের ঘুঘুমারী এলাকা হতে ফুলুয়ারচর নৌকা ঘাট পর্যন্ত সাড়ে ৩ কিলোমিটার দুরত্ব ব্রহ্মপুত্র নদের বামতীর (পূর্বপাড়) স্থায়ী নদীর তীর সংরক্ষণের কাজ ৯টি প্যাকেজে মধ্যে ৫টির কাজ শুরু করা হয়।

এর মধ্যে মেসার্স তাজমঞ্জিলের অধীনে পঞ্চম প্যাকেজের কাজটি শুরু করেন। এই পঞ্চম প্যাকেজে জিও ব্যাগে বালুর পরিবর্তে কাঁদা-দোআশ মাটি ভরাটের অজুহাত দেখিয়ে কে বা কারা উদ্দেশ্য মুলক ভাবে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক (কুড়িগ্রাম)’র নির্দেশ মোতবেক তীর সংরক্ষণ কাজটি বন্ধ করে দেয়। এরই প্রতিবাদে প্রায় ৩ শতাধীক মানুষ ওই মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করেন। পঞ্চম প্যাকেজের শ্রমিক আব্দুল হক, আব্দুল লতিফ, আব্দুস সামাদ ও সামছুল হক বলেন, আমার নিজ এলাকা হিসেবে ভালো কাজ করছিলাম।

আমাদের জানা মতে ঠিকাদার কোন অনিয়ম করেনি এবং জিও ব্যাগে কাদাঁ মাটি দেওয়া হয়নি। হঠাৎ করে কাজটি বন্ধ করায় আমরা হতাশায় রয়েছি। ওই এলাকার বীরমুক্তিযোদ্ধা হাবিল উদ্দিন বলেন, নদের তীর সংরক্ষণের ৫ম প্যাকেজের কাজটি সুন্দর ভাবে হচ্ছিল। হঠাৎ করে উক্ত কাজটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ইতোমধ্যে ৩টি বাড়ি ভেঙ্গে নদীগর্ভে যাওয়ার উপক্রম হয়ে গেছে এবং আরো অনেক বাড়ি ঝুকিতে রয়েছে। এই তীরসংরক্ষণ কাজটি দ্রুত পূনরায় চালু করার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করছি। বন্দবেড় ইউপি সদস্য সাইদুর রহমান জানান, তীর সংরক্ষণের কাজটি বন্ধ থাকায় আমাদের অনেক ক্ষতি হচ্ছে।

বাড়িঘর ভেঙ্গে যাচ্ছে। আর যাতে এই গ্রামবাসিকে ভিটেমাটি না হারাতে হয় সেজন্য উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোরদাবী করছি। অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুর ছবুর জানান, কি কারনে কাজটি বন্ধ করা হয়েছে তা আমার জানা নেই। তবে কাজটি পূণরায় দ্রম্নত চালু করা হলে নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে আমরা রক্ষা পাবো।