রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর  নিকট দিনাজপুর উপশহরে ক্ষতিগ্রস্থ প্লট বরাদ্দের জন্য আবেদন

নয়ন, দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুর শহরের উপশহর এলাকার ১৯৬০-৬১ সন বসতভিটা অধিগ্রহন এর পর থেকে বসবাস করে  আসা ভূমিহীন ক্ষতিগ্রস্ত  পরিবার অবরাদ্দকৃত প্লটে দীর্ঘ দিন যাবৎ জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিকবার লিখিত আবেদন ও দিনাজপুর জেলাপ্রসাসক এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী  বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করেও মিলছেনা বরাদ্দ। অথচ জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজসে এসকল পরিবারকে প্লট বরাদ্দ থেকে বঞ্চিত করে  ,বরাদ্ধ দেয়া হচ্ছে বৃত্তবানদের যা পরবর্তিতে সে প্লট বিক্রয় করে হাতিয়ে নিচ্ছে বিপুল পরিমান নগদ অর্থ । জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের জমিতে দীর্ঘদিন থেকে বসবারকারী এসকল ভূমিহীন পরিবাররা সরকারি নিয়মনিতী ও বর্তমান সরকারের মুল্য বজায় রেখেই উচ্ছেদ না করে প্লট বরাদ্দের জন্য মহামান্ন রাষ্ঠ্রপতি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে  আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

দিনাজপুর উপশহর এলাকার ভূমিহীন ও ক্ষতিগ্রস্ত বসবাসকারী পরিবারের সদস্যরা  জানান, দিনাজপুরে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ১৯৬০-৬১ সন বসতভিটা অধিগ্রহন এর পর থেকে আজ পর্যন্ত আমরা ভূমিহীন ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে অবরাদ্ধ কৃত ক্ষদ্র প্লট গুলোতে বসবাস করে আসছি। গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ নির্মাণের পর দীর্ঘ সময়ের মধ্যে একাধিকবার লিখিত ভাবে আবেদন করলেও সারা মেলেনি। অথচ জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের পূর্বের কর্মরত অসাধু কর্মকর্তারা অসধ প্রক্রিয়ায় পড়াতন ৬ নং বøকের ৮০,৮৭ ও ১০ নং বøকের ৫০ সহ অনেক প্লট বরাদ্দ দিয়েছে। যেসকল ব্যক্তিদের প্লট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তাদের একাধিক বাড়ি ও জমি রয়েছে। বর্তমানে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের ক্ষুদ্র প্লটে বসবাসকারি ভূমিহীন যে যেখানে আছে তাদের সে প্লট গুলি উচ্ছেদ না করে সরকারি নিয়মনীতি অনুযায়ী বসবাসকৃত প্লট গুলো সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে তাদের  নামেই বরাদ্দ দেওয়া হোক এমন দাবি জানিয়েছেন ।

ভূমিহীন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা জানান , বসবাসকৃত প্লট থেকে উচ্ছেদ পক্রিয়ায় গেলে সরকারের যেমন ব্যয় হবে তেমনি এসকল বসবাসকৃত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবাররা সর্রবহারা হয়ে পড়বে। উচ্ছেদ পক্রিয়া বন্ধ করে সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে আমাদের প্লট বরাদ্দ দিয়ে যেমনি সরকারের বাচবে উচ্ছেদ পক্রিয়ার অর্থ তেমনি প্লট গুলো বর্তমান সরকারের নিয়মনীতি অনুযায়ী বরাদ্দ দিয়ে আদায় করা যাবে অধিক রাজস্ব।

উল্লেখ্য , জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের জমিতে দীর্ঘদিন থেকে বসবারকারী ক্ষতিগ্রস্থ এসকল ভূমিহীন পরিবাররা সরকারি নিয়মনিতী বজায় রেখেই সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে উচ্ছেদ না করে প্লট বরাদ্দের জন্য মহামান্ন রাষ্ঠ্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  সু-দৃষ্ঠি রাখবেন বলে ক্ষুদ্র প্লট গুলোতে বসবাস কারি ভূমিহীন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা আসাবাদি  ।